তুচ্ছ ঘটনায় ৮ম শ্রেনীর ছাত্রকে মারধর

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জের পাঠানটুলী এলাকায় প্রতিপক্ষের মারধরে রক্তাক্ত জখম সহ গুরুতর আহত হয়েছে লক্ষী নারায়ণ কটনমিল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র ও উদীয়মান ফুটবলার মো: মোয়াজ (১৪)। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) মঙ্গলবার দুপুরে নাসিক ৮নং ওয়ার্ডের গোদনাইল নীট কর্নসার্নের সামনে এ ঘটনাটি ঘটেছে। এসময় মোয়াজের কাছ থেকে একটি দামী মোবাইল ফোন ও বাজার করার ৬ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। নারায়ণগঞ্জের খানপুর ৩’শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: সারোয়ার হোসেন তাকে চিকিৎসা প্রদান করেন।

মোয়াজ পাঠানটুলী এলাকার মো: খাজা মামুনের ছেলে। এ ঘটনায় মো: খাজা মামুন মঙ্গলবার রাতে বাদী হয়ে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে লিখিত একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে বলা হয়, মো: খাজা মামুনের ছেলে মোয়াজ তার সহপাঠিদের নিয়ে গত সোমবার এনায়েতনগর ত্রলাকার মেলায় ঘুরতে যায়। একই দিনে পাশ্বর্বতী এলাকা আইলপাড়া এলাকার মাদক ব্যবসায়ী রফিক ড্রাইভারের ছেলে মাদকসেবী নিলয় (১৮) সহ তার আরো কয়েকজন বন্ধুরা ঐ মেলায় যান। সেখানে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডা দেখা দেয়। এর এক পর্যায়ে নিলয় তাদেরকে এলাকায় দেখে নিবে বলে হুমকী দেন। পরের দিন মঙ্গলবার দুপুরে মোয়াজের বাড়ির সংলগ্ন নিট কনসার্ন গার্মেন্টের গেইটের সামনে রফিক ড্রাইভারের নেতৃত্বে তার ছেলে নিলয় সহ তার বন্ধুরা মো: মোয়াজকে বেদম মারধর করে রক্তাক্ত জখম করেন। এসময় মোয়াজের কাছ থেকে অপ্পো মডেলের ৩০ হাজার টাকা মূল্যেও একটি মোবাইল ফোন ও বাজার করার ৬ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শহীদুল অভিযোগের বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে ঘটনাটি সরেজমিনে তদন্ত করবেন বলে তিনি জানান।

এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করায় প্রতিপক্ষরা মোয়াজ সহ পরিবারের সকল সদস্যদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি প্রদান করছে। এতে ভুক্তভোগীরা নিরাপওাহীনতায় ভুগছে বলে জানা গেছে।

1