বন্দরে একই পরিবারের তিন জনকে হত্যার চেষ্টা মামলা দায়ের

0

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম : জমি দখলকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দরে একই পরিবারের তিন জনকে ছুকাঘাত ও ইট দিয়ে থেতলে হত্যা চেষ্টায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার সকালে ও মঙ্গলবার বিকেলে বন্দর উপজেরার লাঙ্গলবন্দ’র তাজপুর এলাকায় খোরশেদ আলমের বাড়িতে। এ ঘটনায় তাসলিমা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৩৫/১৬২। তারিখ ১১-৩-২০১৯ ইং।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার ও জমি দখলকে কেন্দ্র করে গত সোমবার তাজপুর এলাকার মো. খোরশেদ আলমের বাড়িতে জোরপূর্বক প্রবেশ করে মো. রনি (২৫) পিতা কেরামত আলী , কেরামত আলী পিতা সরযত আলী, শাহানাজ স্বামী কেরামত আলী ও মোসা. রতœা পিতা কেরামত আলী গংরা রিপন (২২) কে ছুরি দিয়ে আহত করে। পরবর্তীতে রিপনের মা তাসলিমা বন্দর থানার একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে কামতাল তদন্ত কেন্দ্রের এএস আই মোস্তফা ঘটনাস্থলে যান তদন্তের জন্য। এতে বিবাদীরা ক্ষীপ্ত হয়ে পূনরায় খোরশেদ ও তার পরিবারের সদস্যদেন উপর হামলা চালায়। এসময় ১ নং আসামী ইট দিয়ে বাদিনীর স্বামী খোরশেদ আলমকে আঘাত করলে তাকে বাঁচাতে ছোট ছেলে লিটন (১৬) সামনে এগিয়ে গেলে তার মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে। লিটন ইটের আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে ২নং আসামী কেরামত আলী, ৩ নং আসামী শাহানাজ ও ৪নং আসামী মোসা. রতœা বেগম লাঠি দিয়ে বাদিনী ও বাদিনীর স্বামীকে বেধরক মারধর করেন। এতে তাদের গায়ে নিলা-ফুলা জখম হয়। এসময় আসপাশের লোক এগিয়ে আসলে আসামীরা তাদেরকে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়।

মামলার বাদী তাসলিমা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে আসামীরা আমাদের বাড়িতে জোরপূর্বক ঘর তুলে বসবাস করছে। এতেও তারা সন্তষ্ট না থেকে আমাদের পুরো বাড়ি দখল করার পায়তার করছে এবং বাড়ি থেকে চীরতরে উৎখাত করতে গায় পড়ে ঘসড়া করছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত কয়েকদিন পূর্বে রনি, তার বাবা, মা ও বোন এক যোগে আমাদের উপর অতর্কীত হামলা চালায়। ্ হামলায় আমার দুই ছেলে, স্বামীসহ আমি নিজে গুরুতর আহত হই। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই প্রশাসনের কাছে।

এ বিষয়ে বন্দর থানাধীন কামতাল তদৗল্প কেন্দ্রের (আইসি) উপ-পরিদর্শক মো. আনোয়ার হোসেন জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ও জমি দখলের জন্যই রনি গংরা খোরশেদেও পরিবারের উপর হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

0