বিচারপতির স্ত্রীর কাছে ঘুষ দাবি, পুলিশের এএসআই’র ২ বছর কারাদণ্ড

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনে গিয়ে উচ্চ আদালতের এক বিচারপতির স্ত্রীর কাছে ঘুষ দাবি করার মামলায় পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) সহকারী উপ-পরিদর্শককে (এএসআই) দুই বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
আজ ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ হাফিজুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।
দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গি থানার খোচাবাড়ি চাঢ়োল এলাকার মৃত মোহাম্মাদ আলীর ছেলে সাদিকুল ইসলাম (২৩৪৬)।
এ বিষয়ে আদালতের পেশকার মো. ফোরকান মিয়া সাংবাদিকদের জানান, রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, এএসআই সাদেকুল তখন এসবিতে কর্মরত ছিলেন। ২০১৬ সালের ৩০ আগস্ট উচ্চ আদালতের এক বিচারপতির বাসায় যান। নিজেকে এসআই আবদুস সালাম পরিচয় দেন। বিচারপতির দুই মেয়ের পাসপোর্ট পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য ওই বিচারপতির স্ত্রীর কাছে ২ হাজার টাকা ঘুষ চান। তখন সাদেকুল ইসলাম বলেন, ‘প্রতিটি ভেরিফিকেশনের জন্য ১ হাজার টাকা দিতে হবে। এই টাকা না দিলে ভেরিফিকেশন হবে না।’ পরে এ ঘটনা ওই বিচারপতিকে জানান তার স্ত্রী। পরে আদালতের নির্দেশে সাদেকুল উচ্চ আদালতে হাজির হন। আদালতের কাছে তিনি ক্ষমা চান। আদালত শুনানি নিয়ে এএসআই সাদেকুলের বিরুদ্ধে মামলা ও তাকে গ্রেফতার করতে বলেন।
সুপ্রিম কোর্টের তৎকালীন স্পেশাল অফিসার হোসনে আরা বাদী হয়ে রাজধানীর শাহবাগ থানায় ২০১৬ সালের ৩১ আগস্ট এএসআই সাদেকুলের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে ঘটনার তদন্ত করে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপপরিচালক রাহিলা খাতুন আসামি সাদেকুল ইসলামের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০১৮ সালের ৮ অক্টোবর আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। দুদকের পক্ষ থেকে চারজন সাক্ষী আদালতে সাক্ষি দেন।’

1