বৈশাখের রসায়নে চড়া দাম ইলিশের

0

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ বৈশাখ দিয়ে শুরু হয় বাংলা পঞ্জিকার মাস গণনা। এ জন্যই এর প্রথম দিনটি বাঙালিরা উদ্যাপন করতে চায় একটু ভিন্নভাবে। আর এই ভিন্নতায় সাম্প্রতিক সংযোজন পান্তা–ইলিশ। বৈশাখের প্রথম প্রহরে খাবারের তালিকায় মানুষ চায় এক টুকরো ইলিশ ভাজির সঙ্গে এক থালা পান্তা।

ইলিশের এই সংযোজন চৈত্রে মাছের বাজারে সবার বাড়তি নজর টানে। সবাই চায় একটা ভালো আকারের ইলিশ কিনতে। ফলে বাজারে চাহিদা যায় বেড়ে। অন্যদিকে এখন মৌসুম না হওয়ায় ইলিশের সরবরাহ কমে যায়। এতে অর্থনীতির স্বাভাবিক সূত্রে ইলিশের দামটা হু হু করে বেড়ে যায়।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) নগরীর বিভিন্ন মাছের বাজার পর্যবেক্ষন করে সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পেয়েছেন তিনি।
এক আড়ৎদার এর সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, পয়লা বৈশাখ সামনে রেখে প্রতিদিনই ইলিশের চাহিদা বাড়ছে। তবে চাহিদা অনুযায়ী বাজারে ইলিশ আসছে না। তিনি বলেন, গতকাল চারটি ইলিশে এক কেজি হলে তা বিক্রি হয়েছে ৪০০ টাকা দরে। দুটি ইলিশে এক কেজি হলে বিক্রি হয়েছে ৯০০ টাকা দরে। এক কেজির একটু কম ওজনের প্রতি কেজি ১ হাজার ৫০০ টাকা থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। তবে এক কেজির থেকে বড় ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার টাকা থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত। আর এর থেকে বড় হলে সেই ইলিশ কেজিপ্রতি প্রায় ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

একজন সরকারি বাজারে এসেছিলেন ইলিশ কিনতে দাম শুনে হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ‘ছেলেমেয়েরা আবদার করেছিল পয়লা বৈশাখে ইলিশ লাগবে। দুই দিন ধরে বাজারে আসছি। কিন্তু দাম এত বেশি যে কিনতে পরছি না।’

এদিকে ইলিশ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে দাম বেড়ে যাওয়ার আরও একটি কারণ জানা গেছে। তাঁরা বলেন, একে ইলিশ কম ধরা পড়ছে। তারপর আবার বড় সাইজের ইলিশ মহাজনেরা কিনে মজুত করে রাখছেন।

0