রণবীর না কপিল !

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ আজ ৬ জুলাই, বলিউড তারকা রণবীর সিংয়ের জন্মদিন। তাঁর বয়স হলো ৩৪। কিন্তু জন্মদিনের প্রথম প্রহরে রণবীর সিং টুইটারে যে ছবি পোস্ট করেছেন, সেটা তো রণবীর সিংয়ের নয়! ছবির মানুষটার সঙ্গে রণবীর সিংয়ের চেহারার খানিকটা মিল আছে বটে, কিন্তু ওই ছবির সঙ্গে ভারতের ক্রিকেটার কিংবদন্তি অধিনায়ক কপিল দেবেরই বেশি মিল। তবে কি বদলে গেলেন রণবীর সিং? বদলে গিয়ে তিনি কপিল দেব হলেন?

চলচ্চিত্র একটা আশ্চর্য জায়গা। সেখানে একজনই বড় পর্দায় বিভিন্ন মানুষের জীবন যাপন করেন। রণবীর সিং ব্যক্তিগত জীবনেও কপিল দেবের দারুণ ভক্ত। কিন্তু যখন তাঁকে কপিল দেবে বদলে ফেলা হলো, তখন ভাবছেন কপিল দেব হয়ে ওঠা সহজ কাজ নয়। বিশেষ করে তাঁর মতো বল করতে পারা। এ জন্য নাকি নিজের শারীরিক কাঠামোই বদলে ফেলতে হয়েছে রণবীর সিংকে।

১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে নাটকীয়ভাবে ভারতীয় দলের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের ওপর ছবি তৈরি হচ্ছে। নাম ‘এইটি থ্রি’। টুইটারের ছবিটি ‘এইটি থ্রি’ চলচ্চিত্রে বলিউড তারকা রণবীর সিংয়ের ফার্স্ট লুক। বলিউড তারকা আয়ুষ্মান খুরানা, আলিয়া ভাট, আলিয়া ভাটের মা সোনি রাজদান, সারা আলী খান, অদিতি রাও হায়দারি, কুবরা সাইত, সানায়া মালহোত্রা, সনু সুদ, মৌনি রায়, দিয়া মির্জাসহ অনেকেই এই বদলে যাওয়া রণবীর সিংকে দেখে চমকে উঠেছেন। তাঁদের মতে, সত্যি সত্যি একেবারে বদলে গেছেন রণবীর সিং।

ছবির ক্যাপশনে রণবীর সিং লিখেছেন, ‘আজ এই বিশেষ দিনে আমি নিজেকে হারিয়ানার হারিকেন রূপে উপস্থাপন করছি।’

অলরাউন্ডার কপিল দেবকে ‘হরিয়ানার হারিকেন’ বলা হতো। ক্রিকেট তারকা শিখর ধাওয়ান আবার রণবীর সিংয়ের জন্মদিনের এই ছবিতে মন্তব্য করেছেন, ‘একদম পাজির মতোই লাগছে। শুভ জন্মদিন ভাই। জীবন আনন্দময় হোক।’

ভারতের ক্রিকেটার কিংবদন্তি অধিনায়ক কপিল দেবভারতের ক্রিকেটার কিংবদন্তি অধিনায়ক কপিল দেবএই তো কিছুদিন আগে ব্রেকফাস্ট উইথ চ্যাম্পিয়ন অনুষ্ঠানে কপিল দেব গৌরব কাপুরকে বলেছেন, রণবীর সিং আর পরিচালক কবির খান তাঁর ব্যক্তিত্ব নিয়ে রীতিমতো গবেষণা করেছেন। ওই অনুষ্ঠানে কপিল দেব আরও বলেন, ‘রণবীর সিং দুর্দান্ত অভিনেতা। সে আর কবির খান সময় নিয়ে প্রতিটি খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে আলাপ করেছে। আমি কীভাবে কথা বলি, আমার উচ্চারণ কেমন—সবকিছু আয়ত্ত করেছে। রণবীর ভেবেছিল, যেহেতু আমি একজন ফাস্ট বোলার, তাই আমার আচরণ আগ্রাসী হবে। আমি রেগে গেলে তা কীভাবে প্রকাশ করি, সেটা বুঝতে আর শিখতে চেয়েছিল। আমি বলেছি, মাঠে যতটুকু দেখা যায়, আমার রাগ ওই পর্যন্তই। মাঠের বাইরে আমি কখনো রাগ করি না।’

রণবীর সিং প্রথমে দুই দফায় কপিল দেবের কাছ থেকে শিখেছেন, কীভাবে কপিল দেব হতে হয়। কিন্তু তাতেও তাঁর মন ভরেনি। পরে টানা ১০ দিন তিনি দিল্লিতে কপিল দেবের বাসায় তাঁর সঙ্গে থেকেছেন। তারপরই শুটিংয়ের জন্য উড়াল দিয়েছেন। তখন রণবীর সিং বলেছিলেন, ‘আমার অভিনয়জীবনে এমন ঘটনা এবারই প্রথম। আমি যে মানুষটির চরিত্রে অভিনয় করব, সেই কিংবদন্তির কাছে থেকেই সেই মানুষ হয়ে ওঠার শিক্ষা পেয়েছি। এটা আমার জীবনের জন্য একটা অপূর্ব সুযোগ।’

রণবীর সিং ও কপিল দেবরণবীর সিং ও কপিল দেববোঝা যাচ্ছে, সুযোগটা পুরোপুরি কাজে লাগাচ্ছেন রণবীর সিং। তাই ২০১৯ সালে ভারত বিশ্বকাপ ক্রিকেটে জিতুক বা হারুক, ২০২০ সালে রণবীর সিংয়ের নেতৃত্বে বলিউডের পর্দায় বিশ্বকাপ ক্রিকেট জিতবে ভারত।

1