ছেলে ধরা সন্দেহে আটক নারী

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ  ফতুল্লায় শেফালী বেগম (২৩) নামে এক নামে এক নারীকে ছেলে ধরা সন্দেহে আটক করে পুলিশকে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। আটককৃত শেফালী কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি থানার মো. আশরাফ চৌধুরীর স্ত্রী। রবিবার (২১ জুলাই ) সকাল ৯ টায় ফতুল্লার তক্কার মাঠের বটতলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তক্কারমাঠের বটতলা এলাকার ভাড়াটিয়া গার্মেন্টসকর্মী রশিদ মিয়ার ছেলে আকতার হোসেন (৯) বাড়ি ফেরার সময় তার হাতে ধরে তাকে ৩ তলা মসজিদের সামনে নিয়ে যেতে বলে।

শিশু আকতার হোসেন না বলায় তাকে রুটির লোভ দেয়। নিয়ে যেতে না করায় টানাটানি করলে শিশুটি দৌড়ে পুকুরে পড়ে। এসময় স্থানীয়রা ওই নারীর কাছে পরিচয় চাইলে ঠিকভাবে পরিচয় না দিয়ে কথা কাটাকাটি করে। ভারত থেকে এসেছি বলে জানান। শেফালী বোরকার নিচে শিশুদের স্কুল পোশাক পরা দেখে তাকে ছেলেধরা সন্দেহ করে স্থানীয়রা তাকে আটক করে।

শিশু আকতার হোসেন বলেন, আমারে হাত ধরে বলে তিন তলা মসজিদটা চেনায় দেও। আমারে জিগায় রুটি খাবি। আমি বলছি রুটি খামু না। আমার হাত ছাড়ে না দেইখা আমি ওনারে ধাক্কা দিয়া পুকুরে গিয়া পড়ছি। পরে আমি মার কাছে দৌড় দিছি।

ফতুল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি ) আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত শেফালী বেগমের বাড়ি কুড়িগ্রামে। তার স্বামী ঢাকায় থাকেন। জিজ্ঞাসাবাদে তার কথা বার্তা অসংলগ্ন ছিল। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

1