৫ হাজার ২০০ লিটার চোরাই তেলসহ গ্রেপ্তার ৩

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ ৫ হাজার ২০০লিটার চোরাই পাম ওয়েলসহ তেল চোরাই চক্রের সক্রিয় ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১১, সিপিএসসি নারায়ণগঞ্জ ক্যাম্পের এশটি অভিযানিক দল।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) ভোরে বন্দরের একরামপুর ইস্পাহানি বাজার এলাকার আকিজে ঘাট থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় চোরাই কাজে ব্যবহৃত ১টি ইঞ্জিন চালিত তেলের ট্রলার ও ৩টি মোবাইল সেট উদ্ধার করে র‌্যার।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- বন্দরের একরামপুর ইস্পাহানি এলাকার মো. সিরাজ মিয়ার ছেলে রাজিব মিয়া (২৮), একই এলাকার মৃত আক্কাছ কমান্ডারের ছেলে মো.ইকবাল হোসেন (৩৯) এবং আড়াইহাজারের চৈতাকান্দী এলাকার মো. আজগর আলীর ছেলে মো. আলেক (২৯)।

র‌্যাব-১১, সিপিএসসি নারায়ণগঞ্জ ক্যাম্পের সহকারী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে ২৬ টি ড্রামে ৫ হাজার ৩০০ লিটার চোরই তেলসহ চোরাই চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযান চলাকালে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে উক্ত চক্রের মূল হোতা মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাজের মালিক আ.বারেক মিয়া (৪৫) কৌশলে পারিয়ে যায়।

তিনি জানন, গ্রেপ্তারকৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা স্বীকার করে যে, পলাতক আসামী মেসার্স রিফাত এন্টারপ্রাইজের মালিক আব্দুল বারেক মিয়া (৪৫) এর নির্দেশে তারা পরস্পর যোগসাজসে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে পামওয়েলসহ অন্যান্য ভোজ্য ও জ্বালানি তেল চোরাইভাবে কেনাবেচা করে আসছে। তাদের এই চোরাই পাম ওয়েল নারায়ণগঞ্জসহ ঢাকার বিভিন্ন তেল ব্যবসায়ীদের কাছে সরবরাহ করত।

তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে জানা যায়, বন্দরের একরামপুর ইস্পাহানি বাজার এলাকার আকিজের ঘাট ওরফে কাইস্যার চিপা ঘাটে বেশ কয়েকটি চোরাই পাম ওয়েলের সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। এই সিন্ডিকেট এ এলাকায় চলমান জাহাজ হতে সুকৌশলে দীর্ঘদিন যাবৎ পাম ওয়েলসহ অন্যান্য তেল চুরি করে আসছে। চোরাই চক্র এই পামওয়েলের সাথে ভেজাল তেল মিশিয়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের কাছে এই তেল সরবরাহ করে থাকে। এ সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

গ্রেপ্তারকৃত ও পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে বন্দর থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান মোস্তাফিজুর রহমান।

1