মেসির সঙ্গে ডিনারে বসা হয়নি, আক্ষেপ রোনালদোর

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ ফুটবলপ্রেমীরা দুজনের সম্পর্ককে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আঁচে দেখতেই ভালোবাসেন। কিন্তু রোনালদো জানিয়ে দিলেন ভেতরের কথা, ‘প্রায় ১a৫ বছর এমন প্রতিদ্বন্দ্বিতার পরও আমাদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক। আমাদের এখনো একসঙ্গে ডিনারে বসা হয়নি। ভবিষ্যতে হয়তো হবে।’

মেসি-রোনালদোর প্রতিদ্বন্দ্বিতা অন্য মাত্রা পেয়েছে লা লিগায়। রিয়াল ছাড়ার পর পর্তুগিজ তারকার কি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে মনে পড়ে? অবশ্যই। মেসি ছিলেন বলেই তো রোনালদো প্রতিদিন উন্নতি করার খিদে টের পেয়েছেন। কিংবা তার উল্টোটা। জুভেন্টাস তারকা বলেন, ‘অবশ্যই আমি স্পেনে খেলা মিস করি। মেসি ও আমার মধ্যে অসাধারণ লড়াই ছিল। আমরা একে-অপরের উন্নতিতে সাহায্য করেছি। ফুটবল ইতিহাসে এটাই সেরা দ্বৈরথ। ইতিহাসের অংশ হতে পারা ভালো। আমি যেখানে আছি সে-ও সেখানেই আছে।’

রোনালদোর এখন ৩৪ বছর চলছে। মেসি বয়সে তাঁর চেয়ে দুই বছরের ছোট। আর্জেন্টাইন তারকার সঙ্গেই অবসর নেওয়ার ইচ্ছে আছে কি না, এ প্রশ্নের জবাবে রোনালদো বলেন, ‘সে আমার চেয়ে দুই বছরের ছোট। কিন্তু এ বয়সে আমিও ভালো (ফিটনেস) আছি। আশা করি আগামী বছরও আমি এখানে আসতে পারব। এরপরের দুই বছর কিংবা তৃতীয় বছরেও। এতে যারা অপছন্দ করে তারা আমাকে দেখবে এখানে।’

মেসির সঙ্গে হাত মেলাচ্ছেন রোনালদো। ছবি: টুইটারমেসির সঙ্গে হাত মেলাচ্ছেন রোনালদো। ছবি: টুইটাররোনালদো ইতালিতে পাড়ি জমালেও স্পেন থেকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর খেলা দেখেন মেসি। নিজেই জানালেন সে কথা। আরও জানালেন, রোনালদোর সঙ্গে তাঁর সুন্দর প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল। ‘ক্রিস্টিয়ানোর সঙ্গে সুন্দর দ্বৈরথ ছিল। আসল লক্ষ্য ছিল গোল করার আগে জয়ের চেষ্টা করা। তবে নিজে গোল করার পাশাপাশি জিততে পারলে ভালো। আর লা লিগায় রোনালদোকে পাওয়া ছিল দারুণ ব্যাপার। বিশেষ করে সে রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড় হওয়ায়। এখন সে আরেকটি দুর্দান্ত ক্লাবে আছে এবং আমরা স্পেন থেকে তার খেলা দেখি।’

দেখতে তো হবেই। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বলে কথা! দুজনের রণক্ষেত্র হয়তো বদলেছে, কিন্তু মনের মধ্যে কেউ কারও এতটুকু পেছনে পড়তে চান না। আর তাই রোনালদোও হয়তো ইতালিতে বসে মেসির খেলা দেখেন। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী নতুন কী করছেন, কোথায় তাঁকে ছাপিয়ে যাচ্ছেন—এসব আর কি। কিন্তু মাঠের বাইরে এলেই দুজন ‘ভিনগ্রহ’-এর ফুটবলার থেকে রক্ত-মাংসের মানুষ বনে যান। মানবিক গুণাবলির পরিচয় দিয়ে নিজেদের ব্যাপারে বলেন, ‘আমাদের সম্পর্কটা ভালো।’

ভার্জিল ফন ডাইকের পেছনে থেকে রানার্স আপ হয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে মেসিকে। আর রোনালদো হয়েছেন তৃতীয়। তবে মেসি-রোনালদো পাশাপাশি বসে একে-অপরের প্রশংসা করছেন, মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন—গ্রিমালদি ফোরামের এ দৃশ্য অনেক দিন মনে রাখবেন ফুটবলপ্রেমীরা।

1