নারায়নগন্জের ব্যবসায়ীরা সন্ত্রাস চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে অবস্হান – আইভী

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:   নাসিক মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজীকে নারায়ণগঞ্জ নগরীতে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন।এসময় তিনি মন্ত্রী গাজীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, নারায়ণগঞ্জে অনেক ব্যবসায়ী আছেন যারা পরিচ্ছন্ন রাজনীতি পছন্দ করেন, সন্ত্রাস চাঁদাবাজের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। তারা কিন্তু আপনাকে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী হিসেবে অসম্ভব পছন্দ করেন। আপনি শুধু রূপগঞ্জের মন্ত্রী না, সারা নারায়ণগঞ্জের। আপনি মাঝে মাঝে সদরের কথা ভুলে যান এবং অধিকাংশ সময় রূপগঞ্জে কাটান। আপনাকে অনুরোধ করবো আপনাকে কারণে-অকারণে আসতে হবে। আলাপ আলোচনা করতে হবে মানুষের সাথে। কারণ একটি জেলা থেকে যখন কেউ মন্ত্রী হয় তার কাছে মানুষের অনেক বেশি প্রত্যাশা বেড়ে যায়। অনেক কিছু বলতে চায়।
বুধবার দুপুরে নগরীর নিতাইগঞ্জে যমুনা ব্যাংকের ১৩৫ তম শাখার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক)।
মেয়র আইভী বলেন, আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী যে সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি, বিগত ৪০ বছরের রামরাজত্ব থেকে বের হয়ে এসে মানুষের কাতারে যাচ্ছি। সেই জন্য আপনাকে আমাদের পাশে অসম্ভবভাবে প্রয়োজন। দীর্ঘ ১৬ বছর যাবৎ আমি এ নগরীর মানুষের অধিকারের জন্য লড়াই করে যাচ্ছি। আপনাকেও পাশে চাই। একারণে চাই আপনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। দেশের জন্য লড়াই করেছেন, জীবনের পরোয়া করেন নাই। এখন আপনার চাওয়া-পাওয়ার কিছু নাই। আপনি সর্বোচ্চ জায়গায় পৌঁছে গেছেন। এখন শুধু মানুষকে দিবেন মানুষ তা গ্রহণ করবে। নারায়ণগঞ্জ একটি ঐতিহ্যবাহী জেলা। নারায়ণগঞ্জ জেলা কোন অংশ কম নয়। জেলার ৭ টি থানার মধ্যে প্রত্যেক থানার নিজস্ব ঐতিহ্য আছে। ছোট্র নগরীর মধ্যে ৬০ থেকে ৭০ টি ব্যাংক । এই নিতাইগঞ্জে ও টানবাজারেই প্রচুর পরিমাণ ব্যাংক । এত ব্যাংক মাঝে মাঝে চিন্তা করতাম সবাই যায় একাউন্ট খুলতে, আমার ধারণা ভাবলাম এত টাকা কোথায় যায়? খোঁজ নিয়ে জানতে পারলাম প্রতিদিন নারায়ণগঞ্জে ৩০০ কোটি টাকার উপরে লেনদেন হয়। সরকার বিশাল পরিমাণ একটি রাজস্ব এখান থেকে পাচ্ছে। চট্টগ্রামের পরেই নারায়ণগঞ্জ অবস্থান । তবে সেই তুলনায় নারায়ণগঞ্জের উন্নতি হয়নি।
অনুষ্ঠানে যমুনা ব্যাংক ফাউন্ডেশন ও নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুুলিশ সুপার সুবাস চন্দ্র সাহা, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়মী লীগ সহসভাপতি আবদুল কাদির, শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ, ব্যাংকের কর্মকর্তা সহ প্রমুখ।

1