ওরা এখনও ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে– ভিপি বাদল

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জ জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ মোহাম্মদ ভিপি বাদল বলেছেন, কুশিয়ারা এলাকায় জামাত ও বিএনপি,শিবিরের কারখানা আছে এটা অস্বীকার করা যাবেনা। কেননা এক জায়গায় দুইটা অনুষ্ঠান হতে পারে না। সব সময়ই ওরা অত্যন্ত সোচ্চার থাকে।

ওরা বঙ্গবন্ধুকে ১৫ই আগষ্টের কাল রাত্রীতে হত্যা করা হয়েছিল তার একটাই কারন ওরা স্বাধীণতা মেনে নিতে পারেনি। এখনও ওরা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এই জামাত-শিবিরের দোসরা সেদিন পাকিস্তানী হায়েনাদের কাছে আমার মা, বোনদের তুলে দিয়েছিল।

এই জামাতরাই সেদিন পাকিস্তানীদের ঘর দেখিয়েছিলেন। সেদিন নির্মমভাবে নির্যাতন করেছিল ওরা। ওই পাকিস্তানী হায়েনাদের এই জামাত-শিবিররাই বাংলা মাটি দেখিয়েছিল।

শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) বন্দর ইউনিয়ণস্থ কুশিয়ারা আব্দুল মালেক উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বন্দর উপজেলা সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে সংবর্ধণানুষ্ঠানে প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন,জামাত ইসলামের লোকেরা আজও পর্যন্ত তার কৃতকর্মের জন্য বাংলার মানুষের কাছে ক্ষমা চায় নাই। জামাত ইসলামের সেক্রেটারী জেনারেল ব্যারিষ্টার আব্দুর রাজ্জাক গত পরশুদিন বিবিসি নিউজে দেখেছেন সে বলেছিল স্বাধীনতা যুদ্ধে জামাতীরা ভুল করেছিল আমি তাদের ক্ষমা চাওয়ার জন্য বলেছি কিন্তু তারা ক্ষমা চায় নাই। আমি পদত্যাগ করছি।

তিনি বলেন,আমি রশিদ ভাই ও কাজিম ভাইকে বলেছি বন্দর ইউনিয়নের প্রতি একটু দৃষ্টি দিবেন। এখানে আওয়ামীলীগের ঘাটি বানাতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করলে সোনার বাংলা বেশি দূরে নয়। কোন লোক দেখানো মিছিল, মিটিং দেখে কাউকে নেতা বানানো হবে না। গ্যাস সংক্রান্ত ব্যাপারে তিনি বলেন আমরা নিয়মের মধ্যে থাকব।

এই এলাকায় যাতে কাউকে হয়রানী করা না হয়। প্রয়োজনে আমরা আমাদের নেতা শামীম ওসমানের কাছে এ বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। কাউকে যাতে অযথা হয়রানী করা না হয় এজন্য প্রশাসনের কাছে সুদৃষ্টি থাকল।

বন্দর ইউনিয়ণ আ’লীগের সভাপতি শহিদুল্লাহ মিয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক জাকির হোসেন পনিরের সঞ্চালনায় গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন বন্দর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদ,সাধারন সম্পাদক কাজিম উদ্দিন প্রধাণ,মহানগর আ’লীগের যুব ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির মৃধা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা আ’লীগের ক্রীড়া সম্পাদক শহিদ হাসান মৃধা,মুছাপুর ইউনিয়ণ আ’লীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান,হাজী আলমচান মডেল স্কুল এন্ড কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি মঞ্জুর হাসান মঞ্জু, বন্দর থানা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক খন্দকার হাতেম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারন সম্পাদক তথা ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধান, বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খান মাসুদ, ধামগড় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদ, সাবেক ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনু, মদনপুর ইউনিয়ণ আ’লীগনেতা আজিজ দেওয়ান, বন্দর ইউনিয়ণ যুবলীগের সভাপতি আলী হোসেন, বন্দর ইউনিয়ণ আ’লীগনেতা জাহাঙ্গীর, বন্দর থানা মহিলা আ’লীগ সভানেত্রী সালিমা হোসেন শান্তা, কলাগাছিয়া ইউনিয়ণ আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ইব্রাহিম কাশেম, আ’লীগনেতা ইউসুফ মেম্বার প্রমূখ।

1