সিদ্ধিরগঞ্জে নাভানা সিটিতে সাগরের শেল্টারে চলছে সোহাগ, কামাল, মেহেদী বিভিন্ন অপকর্ম

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকম:  সিদ্ধিরগঞ্জে নাসিক ৭নং ওয়ার্ডস্থ নাভানা সিটি এলাকায় দিন দিন বাড়ছে নানা অপকর্ম। বিভিন্ন বয়সের দলবদ্ধ তরুণ গ্যাং লিপ্ত রয়েছে ছিনতাই, ইভটিজিং, মাদক, নারী দ্বারা দেহ ব্যবসা ও মারামারী সহ এসব অপকর্মে। আর এদেরকে নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদল নেতা রাকিবুর রহমান সাগর শেল্টার দিচ্ছে বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী। সাগরের সাথে রয়েছে সোহাগ, কামাল, মেহেদী নামে আরো কয়েকজন। দিন দিন এসব অপকর্ম নাভানা সহ আশেপাশের এলাকাগুলোতে ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে এলাবাসী জানায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক ব্যক্তি জানান, সাগরের শেল্টারে নাভানা এলাকায় রাতের অন্ধকারে ছিনতাই, মারামারী, দেহ ব্যবসা ও মাদক ব্যবসার মত জঘন্যতম অপরাধ দীর্ঘদিন ধরে সংঘটিত হয়ে আসছে। এসব কাজে সাগর ধরা-ছোয়ার বাইরে থাকে। সন্ধ্যায় গার্মেন্ট ছুটির পর রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করার সময় দলবদ্ধ তরুণ যুবকেরা মেয়েদের উত্তক্ত করে। গভীর রাতে ঐ এলাকায় ফ্লাট বাসায় নারী দিয়ে দেহ ব্যাবসা চলে। এছাড়া মাদক ক্রয়-বিক্রয় ও সেবন চলে রাতের আধারে।
স্থানীয়রা জানান, বেশ কিছুদিন আগেও নাভানায় সোনামিয়া বাজারের এক ব্যবসায়ীর চেইন, আংটি ছিনতাই হয়। সোহাগ ও সাগর সহ আরো কয়েকজনের শেল্টারে মাহবুব, রনি, বাবু, মোহন, কামাল, মেহেদী, কালু, অলি, মিজান সহ আরো অনেকে নাভানা এলাকায় বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের অপকর্মে লিপ্ত থাকে।
এলাকাবাসী আরো জানায়, এসব অপকর্মের কারণে আশে-পাশের তরুণ সমাজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। রাতের বেলায় সাধারণ মানুষ নির্ভয়ে-নির্বীঘেœ চলাচল করতে পারেনা। কর্মস্থলে যেতে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে নারী পোশাক শ্রমিকরা। তাদের ভয়ে এলাকায় কেউ কিছু বলতেও সাহস পায়না।
এ বিষয়ে কথা হলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুল ফারুক বলেন, এ ব্যাপারে আমার কিছু জানা নেই। ঐ এলাকায় মাঝে মাঝে টহল পুলিশ যায়। প্রয়োজনে নিয়মিত যাবে। এছাড়া ঐ এলাকায় এসব অপকর্মের শেল্টারদাতাদের সম্পর্কে তার কাছে কোন তথ্য নেই বলে জানান তিনি।

1