দেশে বর্তমানে স্বৈরাচারী শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে –এড. সাখাওয়াত

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান বলেছেন, দেশে বর্তমানে স্বৈরাচারী শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে শেখ হাসিনার সরকার। শেখ হাসিনার প্রতিহিংসার শিকার বিএনপির চেয়ারপার্সণ বেগম খালেদা জিয়া। গণতন্ত্রকে গলা টিপে হত্যা করতে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে নির্দোষ খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাই গণতন্ত্রের আপোষহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার আন্দোলন সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পরতে হবে। দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলে এই জালিম সরকারকে হঠিয়ে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে দেশের মানুষের ভাত ও ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে। সে আন্দোলনে সবাইকে শরিক হওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।
নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিকদলের প্রয়াত সভাপতি নজরুল ইসলামের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া পূর্বক স্মরণ সভায় প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মার্কেটের চতুর্থ তলায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর শ্রমিকদলের নেতৃবৃন্দের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।
এড. সাখাওয়াত আরো বলেন, প্রয়াত শ্রমিক দল সভাপতি নজরুল ইসলাম ছিলেন বিএনপির একজন নিবেদিতপ্রাণ সাচ্চা জিয়ার সৈনিক। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি দলের জন্য দলের কারাবন্দি চেয়ারপার্সনের মুক্তির আন্দোলনে সক্রিয় ছিলেন। তার মতো নেতার আজ বিএনপিতে খুবই অভাব। আজ এই ত্যাগী নেতার ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে আমরা তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। সেই সাথে প্রয়াত নজরুল ইসলামের প্রাণের সংগঠন শ্রমিক দলের প্রতিটি কর্মী সমর্থককে নজরুল ইসলামের মতো আদর্শবান হওয়ার আহবান জানাচ্ছি।
প্রধাণ বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় শ্রমিক দল সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, প্রয়াত নজরুল ইসলাম ছিলেন একজন নি:স্বার্থ বিএনপি পাগল মানুষ। যিনি কখনো দলের কাছ থেকে কিছু প্রত্যশিা করেননি। বরং সব সময় দলকে দিয়ে গেছেন, দলের জন্য লড়াই সংগ্রাম করে গেছেন। তার মৃত্যুতে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল একজন প্রকৃত যোদ্ধাকে হারিয়েছে। আজতে তার ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে তাকে স্মরণ করছি এবং নারায়ণগঞ্জ শ্রমিকদলের সবাইকে একজন নজরুল ইসলাম হওয়ার শপথ নিতে হবে।
নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মন্টু মেম্বার এর সভাপতিত্বে বক্তব্য দিতে গিয়ে বলেন প্রয়াত নজরুল ভাই নারায়ণগঞ্জের সব বড় বড় নেতার সাথেই রাজনীতি করেছেন। কিন্তু তার ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে কেউই তাকে স্মরণ করার প্রয়োজন মনে করেনি। সবাই ভুলে গেলেও মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান ঠিকই প্রয়াত এই জিয়ার সৈনিককে মনে রেখেছেন এবং শ্রমিক দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রয়াত নজরুল ভাইয়ের মৃত্যুবার্ষিকীতে দোয়ার আয়োজন করেছেন। আর তাই জেলা শ্রমিক দলের পক্ষ থেকে এড. সাখাওয়াত ভাইকে ধন্যবাদ। আমরা যদি আমাদের সিনিয়র নেতাদেরকে মৃত্যুর পরে ভুলে যাই তাহলে আমরা মরে গেলেও পরবর্তী প্রজন্ম আমাদেরকে ভুলে যাবে। প্রয়াত নজরুল ভাইয়ের স্মরণে আরো ব্যাপক আকারে স্মরণ সভা ও দোয়ার আয়োজন করা হবে।
জেলা যুবদলের সহ সভাপতি পারভেজ মল্লিকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি মনির হোসেন খান, আমানউদ্দিন আমান, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম বাদল, জেলা বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন সিকদার, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক এড. এইচএম আনোয়ার প্রধান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিকদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাজির আহমেদ, মহানগর শ্রমিকদলের সদস্য সচিব এসএম আসলাম, যুগ্ম আহবায়ক লুৎফর রহমান মন্টু, ইকবাল হোসেন, ফজললুল হক, রফিকুল ইসলাম মিয়া, মহানগর মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম আহবায়ক লিংকন খান, ডিকে মাহি, সাখাখাওয়াত হোসেন জ্যাকী, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক ইব্রাহীম আহমেদ বাবু, জেলা হেসিয়ারী শ্রমিক দলের সভাপতি আ: মতিন ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন বেপারী, আবে জমজম মোল্লা, সিদ্দিকুর রহমান, নজরুল ইসলাম, পরিবহন শ্রমিক দলের নেতা শহিদ হোসেন, বাদশাহ মিয়া, জাফর হোসেন, জাকির হোসেন, মো: ইউনুস, মো: হানিফ প্রমূখ।

1