ওমর ফারুকের বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:  নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসা সহ বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে চাঁন মিয়া বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ পাইনাদি এলাকায় কোনকে ব্যক্তি বাড়ি করতে হলে কাউন্সিলর ওমর ফারুককে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দিতে হয়। একই সাথে বাড়ি র্নিমানের জন্য রড, সিমেন্ট, বালুসহ অন্যান্য জিনিসপত্র তার কাছে কিনতে বাধ্য করে। কোন মানুষ নিজের ইচ্ছা মত বাড়ি করতে পারেনা। অন্যথায় তিনি বাড়ি র্নিমানের কাজ বন্ধ করে দেন। সাত খুন মামলার প্রধান আসামি নুর হোসেনের মাদক ব্যবসা এই কাউন্সিলরের হাতে নিয়ন্ত্রাধীন।
তিনি আরো বলেন, ওমর ফারুকের বাহিনী আমার ফ্যাক্টরীতে চাঁদা চাইতে আসলে তখন তাদের চাঁদা না দেয়ায় আমার ফ্যাক্টরির দারোয়ানকে মারধর করে। সিদ্ধিরগঞ্জ পাইনাদি এলাকায় ড্রেন নির্মান কাজে বিভিন্ন অনিয়ম করছে সে। আমি এর প্রতিবাদ করায় সে আমার ক্ষতি করার চেষ্টা করছে। এই এলাকায় সড়ক নির্মানের জন্য দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছে স্থানীয় বাসিন্দারা। জনগণের কথা চিন্তা করে মেয়র আইভি সড়ক তৈরির উদ্যোগ নেন কিন্তু সড়কটির পাশে আমার ২টি বাড়ি থাকায় ওমর ফারুক জনপ্রতিনিধি হয়েও তাতে বাঁধা প্রদান করে। ৩৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ১২ ফুট প্রশস্থ ও ৪০০ ফুট দৈর্ঘ্য আরসিসি ঢালাই সহ ড্রেন নির্মান কাজের টেন্ডার পায় মেসার্স কামাল ট্রেডার্স। রাস্তার দুই পাশের বাড়ির লোজনের পক্ষ হতে ৬ ফিট করে দেয়ার কথা হলেও তারা সকলের সম্মতি ক্রমে আমার নিকট থেকে ৮ ফিট নেয়। কিন্তু আমার অপর সাইডে রফিকুল ইসলামের নিকট হতে ৪ ফিট নেয়ার কথা থাকলেও তারা ২ ফিট নিয়ে আমার থেকে আরো ২ ফিট নিতে চাচ্ছে। কাউন্সিলর ওমর ফারুক রফিকের সাথে আতাত করে আমার বাড়ি বাউন্ডারি দেয়াল ভাঙ্গার কথা বলেন। আমি তার প্রতিবাদ জানালে তিনি আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাতে থাকেন। একজন জনপ্রতিনিধি হয়েও সে কি করে জনগণের বিরুদ্ধে কাজ করে।

1