নুরুন নাহারের পরিবারের ব্ল্যাক মেইলিংয়ের শিকার হয়ে বহু পরিবার নিঃস্ব

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: রূপগঞ্জে প্রতারক নুরুন নাহারের পরিবারের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে চনপাড়াবাসী। এই পরিবারের প্রতারনা শিকার হয়ে বহু পরিবার নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে ভুক্তভোগী পরিবার গুলো।
স্থানীয়দের অভিযোগে জানা যায়, রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়া পূণর্বাসন কেন্দ্রের বাসিন্দা নুরুন নাহার বেগম। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে এলাকায় বিএনপি নেত্রী পরিচয় দিয়ে মাদক ব্যবসা, দেহ ব্যবসাসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িয়ে আলোচনায় ছিলেন। বিয়ে করেছেন একাধিক। সর্বশেষ চনপাড়া এলাকার আব্দুল মালেককে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে কারাগারে আটকে রাখেন নুরুন নাহার। এক পর্যায়ে মাদক সম্রাজ্ঞী নুরুন নাহারকে বিয়ে করতে বাধ্য হন আব্দুল মালেক। শুধু আব্দুল মালেকই নন, বহু যুবক মামলাবাজ নুরুন নাহারের প্রেমের জালে ফেঁসে গিয়ে হয়রানির শিকার হয়েছে। এছাড়া অনেক যুবকের সুখের সংসার ভেঙ্গে চুরমার করেছে এই প্রতারক নারী। এ ব্যাপারে চনপাড়াসহ বিভিন্ন জায়গায় বিচার সালিশ হয়েছে। এরপরেও থেমে নেই তার অনৈতিক কর্মকান্ড। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে নানা অপরাধ করে আলোচিত-সমালোচিত নুরুন নাহার আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পরও অপরাধ বানিজ্য বন্ধ করেননি। বরং আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর মামলাবাজ নুরুন নাহার একটি প্রতারক চক্র গড়ে তোলেন। এই প্রতারক চক্রের উল্লেখযোগ্য সদস্যরা হলেন, মামলাবাজ নুরুন নাহারের বর্তমান স্বামী আব্দুল মালেক, তার পুত্র নুরুল ইসলাম রনিসহ অনেকে। এই চক্রটি এলাকার সম্পদশালী ব্যক্তিদের নানা ফাঁদে আটকিয়ে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের অর্থ দাবী করে। কেউ তাদের দাবীকৃত অর্থ দিতে অস্বীকৃতি জানালে ঐ ব্যক্তিকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হয়। সম্প্রতি চনপাড়া গ্রামের ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব ও তার ভাই মোঃ ফারুক হোসেনের কাছে ব্ল্যাকমেইলিং চক্রের প্রধান নুরুন নাহার ও তার পুত্র নুরুল ইসলাম রনি দুই লাখ টাকা দাবী করে। তারা টাকা দিতে অস্বীকার করায় মামলাবাজ নুরুন নাহার ও তার পুত্র নুরুল ইসলাম রনি রূপগঞ্জ থানায় ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব ও তার ভাই মোঃ ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ তদন্ত করলে ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব ও তার ভাই মোঃ ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অভিযোগ মিথ্যা প্রমানিত হয়। এরপর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিব ও মোঃ ফারুক হোসেনের বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও হয়রানিমূলক অপপ্রচার চালাচ্ছে নুরুন নাহার ও নুরুল ইসলাম রনি। এভাবে একের পর এক মানুষকে নানা ভাবে হয়রানি ও ব্ল্যাকমেইলিংয়ের মাধ্যমে অর্থ আদায় করে নিঃস্ব করে দিচ্ছে প্রতারক নুরুন নাহার ও নুরুল ইসলাম রনিসহ তাদের চক্রের সদস্যরা।
স্থানীয়দের অভিযোগে আরো জানা যায়, ব্ল্যাকমেইলিং চক্রের প্রধান নুরুন নাহার ও তার পুত্র নুরুল ইসলাম রনিসহ এই প্রতারক চক্রের সদস্যদের অপরাধমূলক নানা কর্মকান্ডে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। অচিরেই প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নুরুন নাহার বেগম বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য না।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, নুরুন নাহার ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়েছি। খুব শীঘ্রই নুরুন নাহার ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

1