দিল্লির মুসলিম হত্যার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জে বিক্ষোভ সমাবেশ

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:  নারায়নগন্জ জেলা ওলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা আব্দুল আউয়াল প্রধানমন্ত্রী কে উদ্দ্যেশ করে বলেন আপনার পিতার জন্মশত বার্ষিকি পালন করতে যাচ্ছেন,যদি মোদিকে দাওয়াত দেওয়া হয় তাহলে বঙ্গবন্ধু কে অসম্মান করা হবে। ভারত সরকার মুসলমানদের উপর নির্যাতন করে হত্যা সহ মসজিদে আগুন দেওয়া হচ্ছে। যদি সারা দেশে মুজিবশত বর্য ভালো ভাবে করতে চান তাহলে মোদী কে বাদ দিতে হবে , আমরা চাই মুজিবর্ষ ভালোভাবে পালিত হউক। কারন ভারত সরকারের মোদির হাতে মুসলমানদের রক্তের দাগ লেগে আছে,শুধু তাই নয় দিল্লিতে মুসলামানদের ধর্মীয় মসজিদে আগুন দিয়ে সেখানে নির্বিচারে মুসলমানদের হত্যা করেছে সরকারী বাহিনী , তার আগমন আমরা মেনে নিতে পারবোনা , তাকে বাংলাদেশের জমিনে পা রাখতে দেবে না তৌহিদি জনতা।শুক্রবার বাদ জুম্মা ডি আইটি চত্তরে জেলা ওলামা পরিষদ আয়োজিত ভারতের দিল্লিতে মুসলমানদের উপর নির্যাতন ও গনহত্যা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশে এ সব কথা বলেন। এসময় ওলামা পরিষদের নেতৃবৃন্দ গনপ্রজান্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন রেখে বলেন দিল্লিতে মসজিদে আগুন দিয়ে মুসলমানদের উপর নির্যাতন করে ৩৭ জন কে হত্যা করলো ভারত সরকার এ ব্যাপারে সরকারের বক্তব্য নেই কেনো? আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বলেছেন এটা নাকি ভারতের অভ্যান্তরীন বিষয়,ওলামা পরিষদের নেতৃবৃন্দ মনে করে মোদি কে ঢেকানো আমাদের অভ্যান্তরিন বিষয়। এটা চলতে দেয়া যায়না প্রয়োজনে জেহাদের ডাক দেয়া হবে এবং ভারতের উদ্দ্যেশে লং মার্চ করা হবে। বক্তারা আরও বলেন আমরা হিন্দুদের মন্দির পাহারা দেবো কারন তারা আমদের আমানত। মুসলমানরা যদি সামান্য এ ধরনের ঘোটনা ঘটাতো তাহলে নিঃশ্পেতিত করে দিতো আমাদের। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন ওলামা পরিষদের সিঃ সহ সভাপতি আব্দুল কাদির, মাওলানা ফেরদৌসুর রহমান, মুফতি হারুন উর রশিদ, মাওলানা কামরুল হোসেন তায়েব,জাকির হোসেন কাসেমী, মাওলানা ইসমাইল আব্বাসী,মোঃ আনোয়ার হোসেন, মুফতি দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

1