অভিনেতা ঋষি কাপুরও চলে গেলেন

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ  বলিউডের প্রতিভাময় অভিনেতা ইরফান খানের মৃত্যুর একদিনের মধ্যেই চলে গেলেন বলিউডের আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা। বর্ষীয়ান অভিনেতা ঋষি কাপুর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন ও কোমল নাহাতা টুইটারে ঋষি কাপুরের মৃত্যুর খবর জানিয়ে টুইট করেছেন। সংবাদমাধ্যমকে তাঁর বড় ভাই অভিনেতা রণধীর কপুর তাঁর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। এই খবরে বলিউডে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।
গত বুধবারই ঋষি কাপুরকে মুম্বইয়ের স্যার এইচ এন রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। অভিনেতাকে রাখা হয়েছিল আইসিসিইউতে । অভিনেতার সঙ্গে হাসপাতালে ছিলেন স্ত্রী নীতু কাপুর। বুধবারই রণধীর কাপুর জানিয়েছিলেন, হ্যাঁ, ঋষির হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবর সত্যি। ও ভালো নেই। তবে ঋষি কাপুরের শারীরিক অবস্থা নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিংবা কাপুর পরিবারের তরফে প্রথমে কিছু স্পষ্টভাবে জানানো হয়নি।
গত ফ্রেব্রুয়ারি মাসেও ঋষি কাপুর দিল্লিতে বোনের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। ফুসফুসের সংক্রমণ নিয়ে সেই সময় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। পরে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন। অবশ্য ঋষি অনেকদিন ধরেই ক্যানসারে আক্রান্ত ছিলেন। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে তিনি নিউ ইয়র্কে ক্যানসারের চিকিৎসা নিয়েছিলেন । ২০১৯-এর সেপ্টেম্বর মাসে তিনি স্ত্রী নীতু কাপুরের সঙ্গে সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে এসেছিলেন। তবে এরপর থেকে মাঝেমাঝেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন বলে পরিবার সুত্রে জানা গিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খুবই সক্রিয় ঋষি কাপুরকে গত ২ এপ্রিলের পর আর কোনও পোস্ট করতে দেখা যায় নি। কাপুর পরিবারের ধারাবাহিকতায় শিশু বয়সেই ঋষি কাপুর অভিনয় শুরু করেছিলেন। পিতা রাজ জকাপুরের ’মেরা নাম জোকার ’ ছবিতে শিশু শিল্পী হিসেবে প্রথম অভিনয় করে ঋষি কাপুর জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন। পিতার আরও একটি চলচ্চিত্রে শিশু শিল্পী হিসেবে তাঁকে দেখা গিয়েছিল। তিনি ছিলেন একাধারে অভিনেতা পরিচালক ও প্রযোজকও। ১৯৫২ সালের ৪ সেপ্টেম্বর মুম্বাইতে জন্ম ঋষির। ১৯৭৩ সালে ডিম্পল কাপাডিয়ার সঙ্গে ’ববি’ ছবিতে প্রথম তিনি নিয়মিত বলিউডের চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেছিলেন। স্ত্রী নীতু সিংয়ের সঙ্গেও ঋষি কাপুর ১২টি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। ১৯৭০ সাল থেকে ২০২০ পর্যন্ত টানা তিনি অভিনয় করে গিয়েছেন। এই সময়ের মধ্যে নায়ক হিসেবে তিনি ৫১টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। ‘হাম কিসিসে কম নাহি’, ’অমর আকবর অ্যান্টনি’,সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। পরবর্তী সময়ে অবশ্য তিনি পার্শ্ব চরিত্রেই বেশি অভিনয় করেছেন। অভিনয়ের জন্য তিনি একাধিকবার ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ডসহ অসংখ্য পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছিলেন।

1