বিশ্বসেরা হয়েই মাঠে ফিরব: সাকিব

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ  জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় ২০১৯ সালের ২৯শে অক্টোবর একবছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে সাকিব আল হাসানকে নিষেধাজ্ঞা দেয় আইসিসি। তার আগে খেলা ওয়ানডে বিশ্বকাপে ছিলেন ফর্মের তুঙ্গে। ৬০৬ রান করার পাশাপাশি নিয়েছিলেন ১১ উইকেট। নিষিদ্ধ হওয়ার পর ক্রিকেট নিয়ে কথা বলতে দেখা যায়নি টাইগার অলরাউন্ডারকে। অবশেষে ক্রিকেট নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। ডয়েচে ভেলের সঙ্গে লাইভ আড্ডায় তিনি মাঠে ফেরা নিয়ে জানিয়েছেন, ফিরতে চান আগের সাকিব হয়ে। যেখান থেকে তিনি শেষ করেছিলেন সেখান থেকে শুরু করতে চান।

সাকিব বলেন, ‘যেখানে আমি শেষ করেছিলাম সেখান থেকেই শুরু করতে চাই। সেটাই আমার সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ।
বলতে পারেন নিজের সঙ্গে নিজের লড়াই। এই একটিই চ্যালেঞ্জ আমার কাছে।’

অধিনায়কত্ব নিয়ে সাকিব বলেন, ‘আপাতত ভাবছি মাঠে ফেরা নিয়ে। এটা (অধিনায়কত্ব) নিয়ে পরে ভাবা যাবে। এখন অপেক্ষা করছি এই ৪-৫ মাস কিভাবে কাটাবো এই ভেবে। আমি মাঠের মানুষ। মাঠে যেতে না পারাটা আমার জন্য কষ্টের। আমি কোথায় খেলছি সেটা কথা নয়। মাঠে ক্রিকেট খেলতে পারাটাই আমার কাছে সব সময় গুরুত্বপূর্ণ।’

নিষিদ্ধ হওয়ার আগে ওয়ানডে র‌্যাংকিংয়ে অলরাউন্ডারের তালিকায় ৩৯৪ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ছিলেন সাকিব আল হাসান। টেস্টে ৩৯৭ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে অলরাউন্ডারের তালিকায় ছিলেন সেরা তিনে। আর টি-টোয়েন্টিতে অলরাউন্ডারের তালিকায় ৩৫৫ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বর পজিশনে ছিলেন সাকিব আল হাসান।

সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী অক্টোবরে ক্রিকেটে ফেরার কথা সাকিব আল হাসানের৷ ধরে নেয়া হয়েছিল, এই সময়ে খুব মিস করতে হবে তাকে, তার অনুপস্থিতিতে খুব ভুগতে হবে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে৷ সত্যিই ভুগেছে৷ বিশেষ করে পাকিস্তানের বিপক্ষে সাকিব থাকলে এমন ভরাডুবি হতো কিনা এই প্রশ্ন তো বারবার উঁকি দিয়েছেই৷ ভাগ্যিস করোনার কারণে সফরের শেষ পর্বটা আর হয়নি, হলে সাকিবহীনতায় বাংলাদেশের ক্রিকেটের অপুষ্টি, অপরিপক্কতা নির্ঘাত আরো বড় হয়ে চোখে পড়তো৷

আপাতত অক্টোবরের আগে আর কোনো সিরিজ খেলার সুযোগ নেই। অক্টোবরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ হবে কিনা তা বলা এখন সম্ভব নয়৷ তবে ছয় মাসের মধ্যে করোনা সংকটের সব চিহ্ন মুছে যাবে, সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে এমনটি নিশ্চিত করে বলাও অসম্ভব৷ তার আগে অবশ্য জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার থাকলেও সেটা নিয়েও রয়েছে শঙ্কা।

তবে এটা নিশ্চিত যে করোনার কারণে মাঠে সাকিবকে অনেকটা কম সময় মিস করবে বাংলাদেশ দল, ফিটনেস আর ফর্ম ধরে রাখলে বাংলাদেশ দলকেও হয়তো অনেক কম মিস করবেন সকিব৷

1