৩০০ অসহায় পরিবারকে রবিউল হোসেনের ঈদ উপহার

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকমঃ  সারাবিশ্বে মহামারি আকার ধারন করা মরনঘাতি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সারাদেশে একটানা লকডাউনের কারণে ঘরবন্দী থাকা অসহায় পরিবারগুলোর একটি মানুষও যাতে না খেয়ে থাকে সেজন্য ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিয়ে চলমান সংকট মোকাবেলায় সরকারের পক্ষ থেকে দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন সহয়তা। সরকারের পাশাপাশি ব্যাক্তি উদ্যোগেও যার যার অবস্থান থেকে সামর্থ অনুযায়ী অসহায়দের পাশে দাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন দেশের সরকার প্রধান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সেই আহ্বানে সাড়া দিয়ে দুর্যোগকালীন সময়ে শুরুর থেকেই নিজের সামর্থ অনুযায়ী কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষগুলোর পাশে দাড়িয়ে কিছুটা সহায়তার হাত বাড়িয়ে অসহা মানুষের মুখে কিছুটা হাসি ফোটানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও ১৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সাবেক ফুটবলার বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী ও সমাজসেবক মোঃ রবিউল হোসেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবার করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড উত্তর কুমুদিনী বাগানের ৩০০ অসহায় পরিবারকে ঈদ উপহার হিসেবে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুরে পশ্চিম উত্তর কুমুদিনী বাগান এলাকায় এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এসময় সকলের নিরাপদ সামাজিক দুরুত্ব নিশ্চিত করে প্রত্যেকের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন রবিউল হোসেন।

এ বিষয়ে মোঃ রবিউল হোসেন জানান, একটানা লকডাউনের কারণে শুধু দিনমজুর বা হতো দরিদ্ররাই নন, মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোও খাদ্য সংকটে ভুগছে। তারা না পারছেন কাউকে বলতে, না পারছেন চাইতে। দেশের চলমান এই সংকট নিরসনে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহন করলেও সবকিছু সরকারের একার পক্ষে করা সম্ভব নয়। সমাজের মানুষ হিসেবে আপনারও কিছু দ্বায়বদ্ধতা আছে, ধর্মীয়ভাবেও দ্বায়বদ্ধতা আছে। সেই দায়বদ্ধাতা থেকেই আমাদের পরিবার সাধ্যমতো চেষ্টা করেছে নিজ এলাকার মানুষের পাশে দাড়াতে। শুধু পাশে থেকে এলাকার মানুষের মুখে কিছুটা হাসি ফোটানো আর আল্লাহকে খুশি করার প্রয়াস মাত্র।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ প্রতিনিধিকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, সংকটে পতিত এসব মানুষের সাহায্য করে আপনি তাদের সাহায্য করছেন না, বরং নিজেকেই সাহায্য করছেন। কারণ, এই মানুষগুলো যখন আপনার উপহার পেয়ে তৃপ্তির হাসি হাসবেন আর মন থেকে খুশি হবেন, তখন সেটাই হবে আপনার জন্য বড় দোয়া। বড় পাওয়া।

এসময় করোনাভাইরাস চালকালীন সময়ে সাধারন জনগনের জন্য নারায়ণগঞ্জ-৫ ও নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান ও শামীম ওসমান যেভাবে কাজ করে যাচ্ছেন সেজন্য তাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন রবিউল হোসেন।

তিনি বলেন, এ দুই সংসদ সদস্যের দল ভিন্ন হলেও তাদের মতাদর্শ এক, তাদের নেতা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। এমপি সেলিম ওসমান এবং এমপি শামীম ওসমান পরামর্শ করে একে অপরের সহযোগীতা এবং দিক নির্দেশনা মোতাবেক সাধ্যমত জনগনের পাশে থাকার চেষ্টা করে চলেছেন। এপমি সেলিম ওসমানের উদ্যোগে খানপুর ৩০০ শয্যা (করোনা) হাসপাতালে পিসিআর ল্যাব, আইসিইউ স্থাপন করা হয়েছে যেখানে শামীম ওসমানের যথেষ্ট ভূমিকা ছিল। শামীম ওসমানের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ হাইস্কুল এবং সিদ্ধিরগঞ্জে পৃথক দুটি নমুনা সংগ্রহ সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও যেন তারা একে অপরের সহযোগীতা নিয়ে আরো সুন্দর ভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহন করতে পারেন সেজন্য আপনার সবাই ওসমান ভাতৃদ্বয়ের জন্য দোয়া করবেন। পাশাপাশি তাদের পরিবারের সবাইকে যেন মহান আল্লাহ সুস্থ রাখেন সেজন্যও সবাই দোয়া করবেন।

1