২০ জন নিয়ে ম্যাচে নামতে চায় চেলসি

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: করোনাকাল পার হলে বিশ্ব আর আগের মতো থাকবে না, এটা অজানা নয়। ভোল পাল্টে‌ যাবে ফুটবলেরও।

খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা মাথায় রেখে এর মধ্যে জার্মান লিগ ও স্প্যানিশ লিগের ক্লাবগুলো ম্যাচ চলাকালীন সময়ে তিনজনের জায়গায় পাঁচজন বিকল্প খেলোয়াড় খেলানোর ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছে। হয়তো এই ব্যাপারে সম্মতি জানাবে ইংলিশ লিগও। করোনাভাইরাস পরবর্তী পরিস্থিতিতে মৌসুম সময়মতো শেষ করতে হলে অল্প সময়ের ব্যবধানেই ম্যাচ খেলতে হবে ফুটবলারদের।

এ অবস্থায় ফুটবলারদের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা চিন্তা করে প্রচলিত তিন বদলির পরিবর্তে পাঁচজন ফুটবলার নামানোর প্রস্তাব দেয় ফিফা। ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থার এ প্রস্তাবে সায় দিয়েছে আন্তর্জাতিক ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি)।

কিন্তু শুধু এতটুকুতেই সন্তুষ্ট হচ্ছে না চেলসি। ২০১২ সালের চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ী এই ক্লাব চায়, ১৮ জন নয়, বরং মোট ২০ জন খেলোয়াড় নিয়ে ম্যাচ খেলতে।

এমনিতেই মাঠে ১১ জন খেললেও, বিকল্প খেলোয়াড়দের বেঞ্চে সাতজন রাখতে পারেন কোচ। করণা-পরবর্তী সময়ে বেঞ্চে সাতজন নয়, বরং নয়জন খেলোয়াড় রাখার অনুমতি চাইছে চেলসি। অর্থাৎ ম্যাচ খেলতে পারবে অমন খেলোয়াড়ের সংখ্যা তখন দাঁড়াবে বিশে। প্রিমিয়ার লিগের আসন্ন সভায় এই প্রস্তাব উত্থাপন করতে চলেছে তাঁরা। অধিকাংশ ক্লাবের সম্মতি থাকলে হয়তো ইংলিশের লিগের ক্লাবগুলো বিশজন নিয়ে খেলতে নামবে।

আর সেটা যদি হয়, সেক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি লাভভান হবে তরুণ খেলোয়াড়েরা। এমনিতেই তরুণ তারকাদের সুযোগ না দেওয়ার জন্য সমালোচিত চেলসি এই মৌসুমে নতুন কোচ ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের অধীনে প্রচুর একাডেমির খেলোয়াড় সুযোগ দিচ্ছে, গা থেকে অভিযোগের কালি মুছতে চাইছে। স্ট্রাইকার ট্যামি আব্রাহাম থেকে শুরু করে উইঙ্গার ক্যালাম হাডসন-ওডোয়, মিডফিল্ডার ম্যাসন মাউন্ট, ব্যারি গিলমোর ও রুবেন লফটাস-চিক, রাইটব্যাক রিস জেমস, সেন্টারব্যাক ফিকায়ো তোমোরি–প্রত্যেকেই যখন সুযোগ পেয়েছেন, নিজেদের জাত চিনিয়েছেন। কোচ ল্যাম্পার্ডও তাঁদের ব্যবহার করছেন অনেক।

ক্লাবের নতুন এই অবস্থায় আক্ষরিক অর্থেই মুখে হাসি ফোটাবে ইয়ান মাতসেন, লুইস বেকার ও আরমান্দো ব্রোজার মতো তরুণদের, যারা এখনো চেলসির মূল দলে সুযোগ পাননি তেমন।

1