‘বর্ণবাদকে ডোপিং-ফিক্সিংয়ের মতো অপরাধ হিসেবে দেখা উচিত’

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম:  বিশ্বজুড়ে চলছে বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলন। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দুটি টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপ জেতানো ড্যারেন স্যামি আইপিএলে বর্ণবাদী আচরণের শিকার হয়েছেন, এমন খবর নিজেই সামাজিক মাধ্যমে জানানোর পর ক্রিকেটে বর্ণবাদের বিষয়ে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে সংশ্লিষ্ট সবাইকে। ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট শুরু হচ্ছে আগামী ৮ই জুলাই। আর বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে পুরো সিরিজে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লিখিত জার্সি পরে মাঠে নামবে ক্যারিবীয়রা। ফুটবলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগেও সব ক্লাব জার্সিতে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখাটি যুক্ত করেছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের দাবি, ক্রিকেটে বর্ণবাদকে ডোপিং-ফিক্সিংয়ের মতো গুরুতর অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হোক। বিবিসিকে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটেও যেহেতু এই সমস্যা রয়েছে সেজন্য এটার বিরুদ্ধে কঠোর আইন প্রয়োজন। ক্রিকেটে কেউ বর্ণবাদী আচরণ করলে তাকে ফিক্সিং ও ডোপিংয়ের মতো অপরাধ মেনে বড় শাস্তি দেয়া উচিত।’

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আইসিসির বর্তমান আইনে প্রথমবার এই অপরাধ করলে ৪ টেস্ট অথবা ৮টি সীমিত ওভারের ম্যাচে নিষিদ্ধ করার বিধান রয়েছে।
আর তৃতীয়বার এই আইন লঙ্ঘন করলে আজীবন নিষিদ্ধ করার নিয়ম।

প্রতিটি সিরিজের আগে ক্রিকেটারদের ডোপিং ও ফিক্সিংয়ের বিষয়ে ব্রিফ দেয়া হয়। এর সঙ্গে বর্ণবাদকেও যুক্ত করতে বললেন হোল্ডার, ‘আমাদের যেমন ডোপিং এবং দুর্নীতির বিষয়ে ব্রিফ দেয়া হয়, তেমনি প্রত্যেক সিরিজ শুরুর আগে বর্ণবাদের বিষয়েও ব্রিফিং দেয়া উচিৎ। আমার মূল কথা হচ্ছে, বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার প্রসার ঘটাতে হবে। আমি ব্যক্তিগতভাবে এমন ঘটনার মুখোমুখি না হলেও কয়েকটি ঘটনা শুনেছি এবং দেখেছি। এমন আচরণ মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়।’

1