ফতুল্লায় মজিবুর হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকম :  নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে নিহত মজিবুর রহমানের হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন সহ বিক্ষোভ মিছিল বের করেছে নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী। এসময় হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে নিহতের হত্যার বিচার সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন।

শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) ফতুল্লার বক্তাবলীর চরবয়রাগাদী এলাকার মুন্সিগঞ্জ-বালুরচর সড়কে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। আর মানববন্ধন শেষে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে খুনিদের ফাঁসি দাবি জানিয়ে বিভিন্ন ধরনের শ্লোগান দিয়ে বিচার প্রার্থনা করেন। বিক্ষোভ মিছিলটি নিয়ে বিভিন্ন সড়ক পদক্ষিণ করে।

এদিকে মজিবুর হত্যার বিচারের দাবিতে বক্তাবলী ও বালুরচর ইউনিয়নের চরবয়রাগাদী এলাকার ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। এসময় বক্তারা বলেন স্থানীয় সন্ত্রাসী কবির গংরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তারা পূর্ব-পরিকল্পিত ভাবে সবুজের পথরোধ করে। সবুজকে মারধর করে মটরসাইকেল থেকে ফেলে দিয়ে এলোপাথারী ভাবে মারধর করে। ছেলেকে মারধর করছে এমন সংবাদ পেয়ে মজিবুর রহমান ছুটে এসে ছেলেকে বাঁচাতে চেষ্টা করলে কবির সহ তার লোকজন মুজিবুর রহমানকে ধারালো ছোরা দিয়ে এলোপাথারী ভাবে আঘাত করতে থাকে। সামনে যাকে পায় তাকে ছোরা দিয়ে আঘাত করতে থাকে। এসময় কবির গংদের ধারালো ছোরার আঘাতে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। নিরীহ কৃষক মজিবুর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করে এবং আদালতের রায়ে যেন তাদের ফাঁসি দেয়া হয় সেটাই কামনা করেন।

মানববন্ধনে নিহতের স্ত্রী সুফিয়া বেগম বলেন, যারা আমার ছেলেদের এতিম করেছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করতে হবে এবং তাদেরকে সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি দিতে হবে। আর স্থানীয় সন্ত্রাসী কবির হোসেন সহ তাদের লোকজন আমার স্বামীকে যেভাবে হত্যা করেছে তাদের বিচার চাই। আমার স্বামীর খুনিদের এখনো পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারলো না। কেন তাদের গ্রেপ্তার করতে পারছে না আমার বুজে আসছে না।

স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা ইদ্রিস আলী দেওয়ান বলেন, নিহত মুজিবুর রহমানের পরিবারকে কি বলে যে শান্ত দেয়ার মত আমরা ভাষা খুজে পাই না। মুজিবুর হত্যা হওয়ার পর তাদের পরিবার এখন অসহায় হয়ে পড়েছে। মুজিবুর রহমানের খুনি কবির গংদের গ্রেপ্তার করে যদি বিচারের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি হলে মুজিবুর রহহমানের আত্ম যেমন শান্তি পাবে তেমনি তার পরিবারের সদস্যরা একটু হলেও স্বস্তি পাবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আবেদন মজিবুর হত্যাকারীদের যেন সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড হয়।

নিহতের ছেলে সবুজ বলেন, সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী কবির আমাকে হত্যার উদ্দেশে রাস্তা গতিরোধ করে মারধর করতে থাকে। এসময় আমাকে বাঁচাতে আমার বাবা আসলে তাকে ধারালো ছুরা দিয়ে আঘাতে হত্যা করে। এছাড়া আমার অনেক স্বজনকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। আমি আমার বাবার হত্যার বিচার চাই। খুনি কবির সহ তাদের সাঙ্গপাঙ্গদের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি হয় প্রশাসনের কাছে সেই প্রার্থনা করছি।

1