কাশিপুরে যদি উন্নয়ন করে থাকি তাহলে জনগন আমাকে ভোট দিবেন

1
ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃ  নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সাইফউল্লাহ বাদল বলেছেন, আমি চেয়ারম্যান হওয়ার পর কাশিপুরে যদি উন্নয়ন করে থাকি তাহলে জনগন আমাকে ভোট দিবেন। আর যদি উন্নয়ন না করে থাকি তাহলে আপনারা আমাকে ভোট দিয়েন না। জনগনের কাছে আমার প্রশ্ন বিগত ১৮ বছরে কাশিপুর ইউনিয়নে কি কাজ হয়েছে আর গত ৫ বছরে কি কাজ হয়েছে তার বিচার করে ভোট দেয়ার আহবান করেন তিনি।

সোমবার (১১ অক্টোবর) বাদ মাগরিব কাশিপুর বাংলাবাজারস্থ গোলাম ডাইং সংলগ্ন বালুর মাঠে কাশিপুর ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যৌথকর্মী সভায় সাইফউল্লাহ বাদল এসব কথা বলেন।
সাইফউল্লাহ বাদল আরো বলেন, কাশিপুরের ৭ নং ওয়ার্ডে গত ৫ বছরে যে উন্নয়ন হয়েছে গত দুই যুগেও তা হয়নি। আমার জানামতে এ অঞ্চলে কোন কাজ বাকী নাই। শুধু নুর মসজিদ এলাকার একটি রাস্তার আংশিক পাকাকরণের বাকী আছে। আমি কথা দিয়ে গেলাম রাস্তাটি নির্বাচনের পর পাকাকরণ করে দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে। এ রাস্তার জন্য আপনাদের মেম্বার শামীম আহম্মেদ যেহেতু কথা দিয়েছে সেই হিসাবে বলতে চাই এ রাস্তা করতে যদি কোন সরকারী বরাদ্ধ নাও পাই তাহলে আমার
পকেটের টাকা দিয়ে রাস্তাটি করে দিবো ইনশায়াল্লাহ।
যৌথকর্মী সভায় কাশিপুর ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি হারুন অর রশীদের সভাপতিত্বে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আশরাফুল আলম, প্রচার সম্পাদক জাহিদুল হক খোকন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সস্পাদক শফিউল্লাহ শফি, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ন কবির রতন, সহপ্রচার সম্পাদক রেহান শরীফ বিন্দু, কাশিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আইয়ুব আলী, সাধারণ সস্পাদক এমএ সাত্তার, কাশিপুর ক্লাবের সভাপতি গোলাম হায়দার, স্থানীয় সমাজ সেবক হেদায়েত উল্লাহ খোকন, হাজী আসাবউদ্দিন, রোকন উদ্দিন শুক্কুর, হাজী রফিক, আলী আকবর, হাজী জামাল হোসেন, আবুল হোসেন, সাবেক ছাত্র নেতা তাসলিম হোসেন, কাশিপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোক্তার হোসেন, কাশিপুর ইউপি সদস্য এমদাদুল হক খোকা, এড মরিয়ম আক্তার, কাশিপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি মমিনুল ইসলাম মমিন,  ৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সস্পাদক আহম্মেদ হোসেন রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক আমির হোসেন, বাদল হোসেন প্রমুখ।
এদিকে কাশিপুর ইউনিয়ন ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের কর্মী সভায় জনতার ঢল নামে। হাজার হাজার লোকজনের সমাগাম হয়। সবার মুখে সাইফউল্লাহ বাদলের নামে শ্লোগানে শ্লোগানে সভাস্থল পরিপূর্ণ লাভ করেন। সবার মুখে একটাই কথা সাইফউল্লাহ বাদলের কোন বিকল্প নাই।
1