নয় বছর পর নিসের জাল ভেদ করতে ব্যর্থ পিএসজি

2

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃ   লিওনেল মেসি সপ্তম ব্যালন ডি’অর জিতলেন। জিয়ানলুইজি দোন্নারুম্মা হলেন বর্ষসেরা গোলরক্ষক। পার্কে দেস প্রিন্সেসে প্রদর্শিত হলো দুই পিএসজি তারকার সাফল্যের স্মারক। তবে লা প্যারিসিয়ানদের আনন্দের পালে বাড়তি হাওয়া লাগাতে ব্যর্থ হলেন লিওনেল মেসিরা। ঘরের মাঠে পিএসজিকে কোনো গোল করতে দিলো না নিস। বুধবার রাতে ফরাসি লিগ ওয়ানের ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে। আর ২০১২ সালের পর দীর্ঘ নয় বছরে প্রথমবারের মতো নিসের জাল ভেদ করতে ব্যর্থ হয়েছে পিএসজি।

ঘরের মাঠে গোল পেতে চেষ্টার কমতি ছিল না পিএসজির। গোটা ম্যাচে ৭১ শতাংশ বল দখলে রেখে সফরকারীদের গোলবারের উদ্দেশ্যে মোট ২২টি শট নেয় মাউরোসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা। তবে আক্রমণের তুলনায় লক্ষ্যে বল ছিল খুবই নগণ্য, মাত্র ৫টি। অপরদিকে ২৯ শতাংশ বল দখলে রেখে ৪টি শটের ২টি লক্ষ্যে রাখতে পারে নিস।চোটেটর কারণে ছয় মাসের বেশি সময় মাঠের বাইরে কাটানোর পর গত রোববার সেন্ট এঁতিয়েনের বিপক্ষে পিএসজির জার্সিতে অভিষেক হয় সার্জিও রামোসের।খেলেন পুরো ৯০ মিনিট। তবে নিসের বিপক্ষে পচেত্তিনোর পছন্দের একাদশে ছিলেন না স্প্যানিশ ডিফেন্ডার। আর চোটের কারণে দুই মাসের জন্য ছিটকে গেছেন নেইমার। ব্রাজিলিয়ান তারকার অনুপস্থিতিতে লিওনেল মেসির দুই পাশে কিলিয়ান এমবাপ্পে ও অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াকে রেখে সাজানো হয় আক্রমণভাগ।২৭তম মিনিটে মেসির পাস ধরে এমবাপ্পের নেয়া ডান পায়ের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান নিস গোলরক্ষক ড্যানিয়েল বেনিতেজ। পাঁচ মিনিট পর ফরাসি স্ট্রাইকার অঁদি দেলোর হেডে এক হাত দিয়ে কোনোমতে বল কর্নারের বিনিময়ে ফেরান দোন্নারুম্মা।

৩৫তম মিনিটে লিওনেল মেসির জোরালো শট ঠেকিয়ে জাল অক্ষত রাখেন বেনিতেজ।দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ছয় মিনিটে দারুণ দুটি সুযোগ পেয়েও বেনিতেজকে পরাস্ত করতে পারেনি লা প্যারিসিয়ানরা। এমবাপ্পের পাস ধরে ডি মারিয়ার শট পা বাড়িয়ে ঠেকান নিস গোলরক্ষক। দুই মিনিট পর মেসির পাস পেয়ে নুনো মেন্দেদের শটও ঠেকিয়ে দেস ২৮ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক।৫৯তম মিনিটে অল্পের জন্য গোল পায়নি নিস। কাছ থেকে অরক্ষিত ডলবেয়ার হেড পোস্টে বাধা পায়। ৭৬তম মিনিটে ডি মারিয়ার শট একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।ঘরের মাঠে পয়েন্ট হারালেও টেবিলের শীর্ষেই রয়েছে পিএসজি। ১৬ ম্যাচে ১৩ জয় ও দুই ড্রয়ে পিএসজির পয়েন্ট ৪১। এক ম্যাচ কম খেলা অলিম্পিক মার্শেই ২৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে। আর ১৬ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে রঁস তৃতীস্থানে এবং ২৭ পয়েন্ট নিয়ে চারে নিস।

2