আমাদরে নতোর্কমীদরে ওপর নর্যিাতন বেড়েছে–তৈমূর

2

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, আওয়ামী লীগের প্রার্থী আইভী হতাশ হয়েছেন। এজন্যই আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশি নির্যাতন বেড়েছে। নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের মাধ্যমেই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন তরান্বিত হবে।

বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জ নগরীর ১২ নম্বর ওয়ার্ডের খানপুর হাসপাতালের সামনে পথসভায় তৈমূর এসব কথা বলেন।

তৈমূর বলেন, নির্বাচনকে ঘিরে প্রশাসন আমাদের নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে অভিযান চালাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আমাদের অনেক নেতাকর্মী এখন আর বাসায় থাকতে পারছে না। এই প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেই আমাদের নির্বাচন করতে হচ্ছে।

তৈমূর আলম বলেন, এতদিন পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করেনি, এখন যারা রাজনীতিবিদ তাদেরকে মাদক ব্যবসায়ী বানিয়ে গ্রেপ্তার করছে।

সরকারি দলের মধ্যে বিভাজন আছে মন্তব্য করে তৈমূর বলেন, নির্বাচনে পরস্পরবিরোধী কথাবার্তায় তাদের মধ্যে যে বিভাজন রয়েছে সেটা পরিস্কার হয়ে গেছে। এতে করে সরকার দলীয় প্রার্থীর (ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী) মধ্যেই এখন হতাশা বিরাজমান। এই হতাশা থেকেই পুলিশি নির্যাতন বৃদ্ধি পেয়েছে।

এই সমস্যা অবশ্যই নিরসন হবে জানিয়ে তৈমূর আলম বলেন, জনমত আমাদের পক্ষে। এই পুলিশি নির্যাতন, সরকারি নির্যাতন যতই বৃদ্ধি পাবে ততই আমাদের প্রতি জনসমর্থন বাড়বে। এতে আমাদের নেতাকর্মীর মধ্যেও ঐক্য বেড়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে তৈমূর আলম বলেন, একটি রাজনৈতিক সুতিকাগার এই নারায়ণগঞ্জ। আপনি নারায়ণগঞ্জ সম্পর্কে জানেন এবং চিনেন। আপনাকে আমরা সবনিয় অনুরোধ করছি নারায়ণগঞ্জের মানুষের যেন আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটে। নারায়ণগঞ্জের মানুষ নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে এবং কোনো ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মাধ্যমে মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষা যেন বিঘ্নিত না হয়। এমনটা যদি করতে পারেন এতে আপনার সুনাম বৃদ্ধি পাবে এবং ভাবমূর্তিও উজ্জল হবে।

তৈমূর আলম বলেন, এই সিটি করপোরেশনকে আমরা গণমুখী করবো। এই নগরী হবে একটা নিরাপদ নগরী। নগরী গড়ে তোলা হবে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে। একটা আধুনিক নগরী যেখানে সব ধরনের সেবা ও সুযোগ সুবিধা থাকবে। অসম্প্রদায়িক নগরী হিসেবে নারায়ণগঞ্জকে গড়ে তোলা হবে।

2