নারায়ণগঞ্জে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও চারন সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের মানববন্ধন

1

নারায়ণগঞ্জে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও চারন সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের মানববন্ধন কথিত ধর্ম অবমাননার অভিযোগে নড়াইল মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে লাঞ্ছনার ন্যক্কারজনক ঘটনা এবং বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে হয়রানির তীব্র নন্দিা ও প্রতবিাদ জানযি়ে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ও চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে আজ সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মুন্নি সরদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলÑবাসদ নারায়নগঞ্জ জেলার সদস্যসচিব কমরেড আবু নাঈম খান বিপ্লব, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি মোঃ সেলিম, কবি রঘু অভিজিৎ রায়, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের আহ্বায়ক প্রদীপ সরকার, জেলার সদস্যসচিব জামাল হোসেন, জেলা কমিটির সদস্য সেলিম আলাদীন প্রমুখ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, নড়াইল মর্জিাপুর ইউনাইটেড কলজেরে এক শক্ষর্িাথীর ফসেবুক পোস্টকে কন্দ্রে করে অধ্যক্ষরে কাছে উত্তজেতি অবস্থায় যান এলাকাবাসী ও কছিু শক্ষর্িাথীরা। সে সময় তনিি কলজেরে র্সাবকি নরিাপত্তার কথা ভবেে বষিয়টি পুলশিকে জানান। এতে তার বরিুদ্ধে অভযিোগ আনা হয় তনিি ওই শক্ষর্িাথীকে রক্ষা করার জন্য পুলশিে ফোন করনে। একথা বলে উত্তজেতি র্ধমান্ধ গোষ্ঠী ওই শক্ষিকরে উপর হামলে পড়েন। এ সময়ে কলজেরে বাংলা বভিাগরে শক্ষিক শ্যামল কুমার ঘোষকওে নর্মিমভাবে প্রহার করে আহত করা হয়। অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বশ্বিাস, শক্ষিক প্রশান্ত রায় এবং শক্ষিক আরুণ কুমার মন্ডলরে তনিটি মোটর সাইকলেে আগুন ধরেিয় দয়ে র্ধমান্ধ র্দুবৃত্তরা। সকাল ১০টা থকেে বকিাল ৪টা র্পযন্ত কলজেে তাণ্ডব চালানো হয়। অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বশ্বিাসকে জুতার মালা গলায় দেিয় লাঞ্ছতি করা হয়। এসময় সখোনে পুলশি সদস্যরাও উপস্থতি ছলি। সামাজকি যোগাযোগ মাধ্যমে সে ছবি ছড়িয়ে পড়েছ।ে পুলশি ও প্রশাসনরে উপস্থতিতিে একজন শক্ষিকরে এধরণরে লাঞ্ছনা শুধুমাত্র সইে শক্ষিক নন গোটা জাতরি জন্য লজ্জাজনক। এই ঘটনায় এখনো কোন প্রশাসনকি ব্যবস্থা নয়ো হয়নি। বভিন্নি সূত্রে এখন জানা যাচ্ছে কলজেরেই একটি চক্র শক্ষিক স্বপন কুমার বশ্বিাসকে অধ্যক্ষরে দায়িত্ব থকেে সরেিয় অন্য একজনকে ওই পদে আনতে চান বলইে এমন মথ্যিা অভযিোগ এনে তাকে লাঞ্চতি করা হয়ছে।ে এর পছেনে নিয়োগ বাণজ্যি ও অন্যান্য কায়েমী র্স্বাথরে বষিয় আছে বলে জানা গেছে।
রফিউর রাব্বি আরও বলেন, বরশিাল বশ্বিবদ্যিালয়ের দুই শক্ষিক বাংলা বভিাগরে সহকারী অধ্যাপক ও চয়োরম্যান সঞ্জয় সরকার এবং একই বভিাগরে সহকারী অধ্যাপক উন্মষে রায়ের ফসেবুক পোস্টকে কন্দ্রে করে তাদরে বরিুদ্ধে কথতি র্ধম অবমাননার অভযিোগ তোলা হচ্ছ।ে মৌলবাদবরিোধী তাদরে অবস্থানকে র্ধমীয় অবমাননা বলে প্রচার করা হচ্ছ।ে বশ্বিবদ্যিালয়ের শক্ষিক সমতিরি সভাপতি এই সাম্প্রদায়কি উসকানি দচ্ছিে বলে অভযিোগ আসছ।ে সম্প্রতি রংপুররে ক্যান্টনমন্টে পাবলকি স্কুল এন্ড কলজেরে দশম শ্রণেরি র্অধর্বাষকি পরীক্ষার ইসলাম ও নতৈকি শক্ষিা প্রশ্নে একটি উদ্দীপকে নারীর অশালীন পোষকই ইভটজিংি এর জন্য দায়ী এ সংক্রান্ত বক্তব্য দয়ো হয়। সারা দশেরে প্রগতশিীল মানুষ এর প্রতবিাদ কর।ে বরশিাল বশ্বিবদ্যিালয়ের ওই শক্ষিকরোও এর প্রতবিাদ করনে। যখোনে দরকার ছলি ওই পরীক্ষার প্রশ্ন প্রস্তুতকারীকে খুজে বরে করা এবং শাস্তরি আওতায় আনা তা না করে এখন প্রতবিাদকারী শক্ষিকদরেকে হনেস্থা করা হচ্ছে।
রফিউর রাব্বি বলেন, এর আগে নারায়ণগঞ্জে সংসদ সদস্য সলেমি ওসমান শ্যামল কান্তি ভক্ত নামে একজন শক্ষিককে সকলরে সামনে চড় মরেছেলিনে এবং কান ধরে উঠবস করেিয় পুলশিে দযি়ছেলিনে। ওই সংসদ সদস্য বা এর সাথে যুক্তদরে কোন বচিার হয়ন।ি মুন্সীগঞ্জরে শক্ষিক হৃদয় চন্দ্র মণ্ডলকে বজ্ঞিান পড়ানোর অপরাধে মারা হয়েছলি, জলেে দয়ো হয়েছলি। সে ঘটনার সাথে যুক্ত কারো বচিার হয়ন।ি নওগাঁয় হজিাব পরার কারণে একজন শক্ষর্িাথীকে মারধোর করছেনে এমন মথ্যিা অভযিোগ তুলে আমোদনিী পাল নামরে একজন নারী শক্ষিককে হনেস্থা করা হল। অথচ দখো গলে স্কুল ইউনর্ফিম না পরে আসায় তনিি শক্ষর্িাথীদরে বকাঝকা করছেনে। একরে পর এক এধরণরে ঘটনা ঘটে চলছে অথচ রাষ্ট্র, সরকার ও প্রশাসন কোন ঘটনার বচিার করছে না।
আবু নাঈম খান বিপ্লব বলেন, ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে কাউকে ঘায়েল করে কোন গোষ্ঠীর স্বার্থ উদ্ধার, সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ও উন্মাদনা তৈরি করা ইত্রাদি আজ হরহামেশাই ঘটে চলেছে। শাসকদলরে সাম্প্রদায়িক মৌলবাদী রাজনীতি তোষণ এবং একরে পর এক ঘটে যাওয়া ঘটনার বচিার না হওয়ার কারণইে এধরণরে সংখ্যালঘু নর্যিাতন ও সাম্প্রদায়িক মনোবৃত্তরি বস্তিার ঘটছ।ে তনিি অবলিম্বে শক্ষিকদরে উপর এই নর্যিাতন-নিপীড়নের ঘটনায় জড়িতদের বচিার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করনে এবং র্ধমান্ধ-মৌলবাদী গোষ্ঠী এবং এদরে প্রশ্রয়দাতাদরে বরিুদ্ধে মুক্তযিুদ্ধরে প্রকৃত চতেনায় বশ্বিাসী সকল বাম-প্রগতশিীল ধর্মনিরপক্ষ গণতান্ত্রকি রাজনতৈকি দল-সংগঠন-ব্যক্ত-িগোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন-গণপ্রতরিোধরে মাধ্যমে রুখে দাড়ানোর জন্য আহ্বান জানান।

1