সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরুদ্ধে সাংস্কৃতিক কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাই-প্রগতি লেখক সংঘ

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ  টুয়েন্টিফোর ডটকম:  শিক্ষক হত্যা ও শিক্ষক নির্যাতনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ প্রগতি লেখক সংঘ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে আজ ২৯ জুন বুধবার বিকাল ৫ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন প্রগতি লেখক সংঘ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি জাকির হোসেন।
বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ প্রগতি লেখক সংঘ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দাস, খেলাঘর নারায়ণগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক ফারুক মহসিন, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির আহ্বায়ক কবি প্রদীপ সরকার, সমাজ অনুশীলন কেন্দ্রের কবি রঘু অভিজিৎ রায়, সমমনার সাংস্কৃতিক সম্পাদক কবি রইস মুকুল, প্রগতি লেখক সংঘ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সহ-সভাপতি লেখক শহিদুল আলম নান্নু, প্রগতি লেখক সংঘ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য সংগীত শিল্পী সুজয় রায় চৌধুরী বিকু, বিবর্তন এর নির্মল সাহা, সাংস্কৃতিক ইউনিয়ন এর সংগীত শিল্পী সংহতি ঘোষ মম, শিক্ষক বিজয় কর্মকার প্রমূখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ক্রমাগত শিক্ষকদের উপর হামলা এবং শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার মত ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি এবং অপরাধীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। ধারাবাহিকভাবে আমাদের দেশে শিক্ষক নির্যাতনের মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটে চলেছে। ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অভিযোগ এনে বিজ্ঞান শিক্ষক হৃদয় চন্দ্র ম-লের হাজতবাস, সাভারের আশুলিয়ায় ছাত্রের বেধড়ক পিটুনিতে আহত উৎপল কুমার সরকারের (৩৭) মৃত্যু এবং ১৮ জুন নড়াইলে মির্জাপুর ইউনাইটেড কলেজের ছাত্র ও স্থানীয় কিছু ব্যক্তি দ্বারা শিক্ষক স্বপন কুমার বিশ্বাসের গলায় পুলিশের সামনেই জুতার মালা দেয়া ধারাবাহিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে।
একেকজন শিক্ষক একেকভাবে নির্যাতন ও হেনস্তার শিকার হচ্ছেন। একজন শিক্ষকের গলার জুতার মালা মানেই দেশের গলায় জুতার মালা। ধারাবাহিকভাবে অমুসলিম শিক্ষকদের ধর্ম অবমাননার ধুঁয়া তুলে আঘাত করা দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র; এই ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে। এ আক্রমণ প্রতিহত না করতে পারলে আমরা দিন দিন অন্ধকারের দিকেই ধাবিত হবো। এখনই সময় ঐক্যবদ্ধভাবে এই অন্ধকার শক্তির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা।
পত্রপত্রিকা মারফত দেখা যাচ্ছে সবগুলো ঘটনায় সরকারের নিরব ভূমিকা, কোথাও কোথাও তাদেরই ছত্রছায়ায় থাকা লোকজন দ্বারা ঘটে চলেছে এসকল ন্যাক্কারজনক ঘটনা। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং অবিলম্বে দায়ী ব্যক্তিদের গ্রেফতার ও শাস্তি প্রদানের দাবি করছি।
বক্তারা আরও বলেন, দেশের সংস্কৃতি ধ্বংস করে ফেলা হচ্ছে; এসকল সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস ও হামলার বিরুদ্ধে দেশে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এবিষয়ে সকল প্রগতিশীল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের ঐক্য এখন জরুরি হয়ে পড়েছে।

1