দেশের মানুষের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করেছে মন্ত্রী এমপিরা – এড, সাখাওয়াত

0

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃ  নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির আহবায়ক এ্যাড,সাখাওয়াত হোসেন খান বলেছেন শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পূর্বে বলছিলেন দেশের মানুষ ১০ টাকা মূল্যে চাউল খাওয়াবে আর ঘড়ে ঘড়ে একজন কে চাকুরী দেবে সেটা কি দিতে পেরেছে। কিন্তু আজ আমরা কি দেখতে পাচ্ছি নিত্যপ্রোয়জনীয় দ্রবের মূল্যে বৃদ্ধি পাচ্ছে আজকে বাজারে গেলে সাধারণ মানুষ তাদের চাহিদা মোতাবেক নিত্যপন্ন কিনতে পারছে না জনগণের ক্রয়ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে । এর কারন কি জানেন এ সরকারের মন্ত্রী এমপিরা দেশের মানুষের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করেছে বিধায় এ অবস্হা সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার (২১ নভেম্বর) বিকেল ৪ টায় আলীরটেক ডিক্রিরচর এলাকায় খুশবো কমিউনিটি সেন্টারে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির আওতাভুক্ত আলীরটেক ইউনিয়ন বিএনপি”র দ্বী-বার্ষিক সম্মলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন শেখ হাসিনা মাথায় হেজাব হাতে তজবী রেখে জনগনের আস্হা অর্জন করে ক্ষমতায় আসে। আজ কে ১০০টাকার মধ্যে ২০ টাকা বিদুৎ এর দাম বৃদ্ধি করেছে এবং সয়াবিন তেলে এখন জনগনকে ক্রয় করতে হচ্ছে ১৯০ থেকে ২০০ টাকায়। এই সরকার থেকে মুক্তি পেতে হলে বেগম খালেদা জিয়া কে মুক্ত করতে হবে এবং তারেক জিয়া কে বিরের বেশে দেশে ফিরিয়ে এনে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের মাধ্যমে গনতান্ত্রিক ব্যাবস্হা করতে হবে। এজন্য তারেক জিয়া যে নির্দেশনা দিয়েছেন তা বাস্তবায়ন করার জন্য ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গনসমাবেশ সফল করতে হবে বিএনপির নেতাকর্মীদের। নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব এড আবু আল ইউসুফ খান টিপু প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি বলেন ১৯৭১ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছিলো। যতবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে তখনি দেশে অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টি হয়েছিলো। তারা সংবাদ পত্রের বাক স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে, দেশের মানুষের গনতন্ত্রান্ত্রিক ভোট ও ভাতের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। তৎকালিন সময়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিলো তখন ৭৪ এ দুর্ভিক্ষ দেখা দিয়েছিলো তখন কি হয়েছিলো পাবনা রেল স্টেশনে মানুষ আর কুকুর একজায়গায় খাবার খেয়েছিলো এবং লজ্জা নিবারনের শরিলে জাল পরিধান করেছিলো। আর এখন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর হচ্ছে জানেন উওরআন্চলের মানুষ মাংস খেতে পারে না, কারন তাদের কাছে টাকা নেই, ক্ষুদ্র রিন নিয়ে মানুষ মাংস কিনে খায়, আর সাবানের পরিবর্তে ছাই দিয়ে কাপর ধোঁয়ার কাজ করছে। বুঝেন আওয়ামী লীগ দেশটার অর্থনৈতিক অবস্হা কোথায় নিয়ে গেছে। তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য বলেন তাহলে কি বলতে হবে বাংলাদেশের গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠাকরতে হবে, কার জন্য করতে হবে, আমার মাটি আপোষহীন নেত্রী খালেদা জিয়ার জন্য করতে হবে এবং আমার রাজনৈতিক অভিভাবক তারেক জিয়া কে এ দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে, দিনের ভোট যেনো রাতে দিতে না পারে সে ব্যাস্হা ফিরিয়ে আনতে হবে। এজন্য বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল কে ক্ষমতায় আনতে হবে এ লক্ষ সামনে নিয়ে ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গনসমাবেশে যেতে হবে দলের নেতাকর্মীদের। এসময় সম্মেলন উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক এ্যাড,সরকার হুমায়ুন কবির। দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে নির্বাচনে কোনো প্রতিদন্ধি প্রার্থী না থাকায় সভাপতি পদে মোঃ আব্দুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ আনোয়ার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মোঃ আওলাদ হোসেন কে নির্বাচিত ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশনার মহানগর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক মোঃ আনোয়ার হোসেন আনু । সহকারী নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মহানগর বিএনপির সদস্য ডাঃ মজিবুর রহমান, মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, মহিলা সভানেত্রী দিলারা মাসুদ ময়না। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক মোঃ মনির হোসেন খান, আনোয়ার হোসেন আনু, ফতেহ মোঃ রেজা রিপন, সদস্য,মোঃ মাসুদ রানা, মাহমুদুর রহমান প্রমূখ। এছাড়াও আরও উপস্হিত ছিলেন বিএনপি নেতা মাহবুব আলম জুলহাস, খোকন সরদার, মফিজুল ইসলাম, পিয়ার আলী, আব্দুর রহিম, নাজির হোসেন, ওহাব ফরায়েজী, আব্দুস সালাম, মজিবুর রহমান, আনোয়ার হোসেন, আলী হোসেন, সাইফুল ইসলাম বাবু, শিবলী সাদিক শিপলু, আব্দুর রশিদ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীগন।

0