বিএনপি সাজাপ্রাপ্ত আসামি দিয়ে দেশ চালাতে চায়- এড,খোকন সাহা

0

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃ নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা বলেছেন, কথা ছিলো বিজয়ের মাসের ১ ডিসেম্বর থেকে আমরা আনন্দ উল্লাস করবো। কিন্তু মেডাম খালেদা জিয়া সন্ত্রাসীরা আমাদের আজ রাজপথে নামিয়েছে আনন্দ উৎসব বাদ দিয়ে। ওরা গনতন্ত্রের কথ বলে, ওরা কয়েক হাজার মানুষকে হত্যা করেছে ২০১৪ সালে, আগুন দিয়ে পুড়িয়ে। ওরা (বিএনপি) খুনির দল ওরা গণতন্ত্রের কথা বলে। ২০০১ থেকে ২০০৬ সালে আমাদের ১৭ হাজার নেতাকে হত্যা করে আজকে ওরা গণতন্ত্রের কথা বলে। ওরা আমাদের ফতুল্লার এক নেতাকে হাত-পা বেধে বুড়িগঙ্গায় ফেলে হত্যা করেছে। ওরা শামীম ওসমানের পুলিং এজেন্ট হওয়ায় আমাদের মা-বোনদের ধর্ষণ করেছিলো। বিএনপির কর্মকান্ডে গণতন্ত্র প্রকাশ পায়না।
শনিবার (৩রা ডিসেম্বর) বন্দর খেয়া ঘাট সংলগ্ন এলাকায় ‘বিএনপি সমাবেশের নামে সন্ত্রসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।
খোকন সাহা বলেন, বিএনপি আজ সমাবেশের নামে দেশে একটি নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাচ্ছে। ওরা ১০ ডিসেম্বর পল্টনে সমাবেশ করে ঢাকা শহরকে আগুন লাগিয়ে দিতে চায়। জননেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে থাকতে আমরা ওদের (বিএনপি) এই অপকর্ম করতে দিবো না। বাংলার জনগণ নিয়ে ওদের প্রতিরোধ করবো। আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি, আমরা বাক স্বাধীনতা বিশ্বাস করি তার মানে এই না যে, ওরা যা ইচ্ছা তাই করবে যা ইচ্ছা তাই বলবে।
তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সব সময় মানুষের পাশে ছিলো, থাকবে। করোনায় মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য দিয়েছে। শামীম ওসমান খাদ্য দিয়েছে সেলিম ভাই দিয়েছে। আজ দক্ষিণের মানুষের সাথে যোগাযোগ সহজ হয়ে গেছে পদ্মা সেতুর জন্য। আজকে রাজশাহীতে দেখলাম বিএনপি দুইটা চেয়ার খালি রেখেছেন। একটা তারেক জিয়া আরেকটা খালেদা জিয়া। তারা নাকি ১০ তারিখের পরে দেশ চালাবে। তারেক জিয়া হলো দেশের খুনি, খুনের মহানায়ক, বিশ্ব চোর। আর খালেদা জিয়া হলো এতিমের টাকা খায়। তাদের দিয়ে দেশ চালাতে চায়। বিএনপিকে বলছি আপনারা সাজাপ্রাপ্ত আসামী দিয়ে দেশ চালাতে চান এটা হতে দেয়া যাবে না। মুজিবের সৈনিক বেচেঁ থাকতে এটা হতে দেয়া যাবে না। আমাদের যুবলীগ, ছাত্রলীগকে বলবো, ওরা (বিএনপি) যদি কোথাও নাশকতা তৈরী করে তাহলে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখুন।

0