ফের বেড়েছে মৃত্যু, তিন জেলায় প্রাণ গেল আরও ১৯ জনের

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টিফোর ডটকম: মহামারী করোনায় ফের বেড়েছে মৃত্যু। তিন জেলায় করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে ময়মনসিংহে ৭ জন, কুষ্টিয়ায় ৬ জন ও রাজশাহীতে ৬ জনের মৃত্যু হয়।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে তিনজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে ও চারজন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। গত এক সপ্তাহের তুলনায় মৃত্যু বেড়েছে। আজ সকালে মমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকালপারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন এ তথ্য জানান।
করোনায় মৃতরা হলেন- ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার শামসুল হক (৯০), মুক্তাগাছার জমিলা আক্তার (৭০), তারাকান্দার আব্দুল কুদ্দুস (৬০)। উপসর্গে মৃতরা হলেন- নেত্রকোনা সদরের আব্দুস সালাম (৪৫), শেরপুর শ্রীবর্দীর ওসমান গনি (৫৬), টাঙ্গাইল জেলার মধুপুর উপজেলার মকবুল হোসেন (৬০) ও সাহেরা খাতুন (৮০)।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ছয়জন মারা গেছেন.

এদের মধ্যে করোনায় তিনজন এবং উপসর্গ নিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা থেকে মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টার মধ্যে তারা মারা যান। রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে হাসপাতালে রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও পাবনা জেলার একজন করে মারা গেছেন। এ ছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন রাজশাহীর দুজন এবং কুষ্টিয়ার একজন।
কুষ্টিয়া করোনা হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গে আরো ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকাল ৮টা থেকে আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত জেলায় ২৫০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩৭ জনের নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১৪.৮০ শতাংশ।
বর্তমানে হাসপাতালে ৩২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী ও ২২ জন উপসর্গ নিয়ে মোট ৫৪ জন ভর্তি রয়েছে। তথ্য নিশ্চিত করেছেন কুষ্টিয়া করোনা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আশরাফুল আলম।

1