নারায়ণগঞ্জে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টেরশ্রমিক সমাবেশ ও লাল পতাকা মিছিল

1

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃমহান মে দিবস উপলক্ষে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে আজ সকাল ১০ টায় আলী আহম্মেদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনের সামনে শ্রমিক সমাবেশ ও শহরে বর্ণাঢ্য লাল পতাকা মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লবের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক খালেকুজ্জামান লিপন, বাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলার আহ্বায়ক নিখিল দাস, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সহসভাপতি এম এ মিল্টন, রি-রোলিং স্টিল মিলস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম কাদির, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরীফ।
নেতৃবৃন্দ বলেন, বাংলাদেশের জিডিপি বাড়ছে, মাথাপিছু আয় এখন ২ হাজার ৫ শত ৯০ ডলার, (৮৬ টাকা ডলার ধরলে ৫ সদস্যের একটি পরিবারে মাসিক আয় প্রায় ৭৩ হাজার টাকা), বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশ, পৃথিবীর বহুদেশ বাংলাদেশকে এখন উন্নয়নের মডেল এ সমস্ত কথা আমরা সরকারের কাছ থেকে প্রতিদিন শুনছি। কিন্তু বাংলাদেশের এই উন্নতির পিছনে প্রধান শক্তি যে শ্রমিক তারা কত মজুরি পায়? পৃথিবীর সবচেয়ে সস্তা শ্রমিক বাংলাদেশে। সে কারণেই দেশে ও বিদেশে মালিকদের এত সম্পদ। গার্মেন্টস, নিট, সুয়েটার, রি-রোলিং, পাট, চা, তাঁত, যানবাহন চালকসহ পরিবহন শ্রমিক, মোটর মেকানিক, রিকশা চালক, দোকান ও হোটেল কর্মচারীসহ সরকার ঘোষিত ৪৩টি সেক্টরের শ্রমিকদের যে মজুরি তাতে মানসম্পন্ন জীবনযাপন করা অসম্ভব। মালিকরা সংগঠিত কিন্তু শ্রমিকদের সংগঠন করার পথে শত বাধা বাংলাদেশে কৃষি, শিল্প ও সেবা খাত মিলে প্রায় ৭ কোটি শ্রমিক দিনরাত পরিশ্রম করেও নিজেদের দারিদ্র্য দূর করতে পারছে না অন্যদিকে কয়েক লক্ষ কোটিপতির জীবনে বিলাসিতার শেষ নেই। শ্রমিকদেরকে শোষণ করেই তাদের এই সম্পদের সৃষ্টি হয়েছে। শ্রমিকরা সচেতন হলে এই অন্যায় শোষণের পথে বাধা সৃষ্টি হবে। সে কারণে শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়ন করার পথে নানা জটিলতা সৃষ্টি করে রেখেছে। শ্রম আইন, বিধিমালা, প্রশাসন, পুলিশ, মাস্তান, শ্রমিকনেতা নামধারী একদল দালালদের ব্যবহার করে মালিক পক্ষ শ্রমিকদের সংগঠিত হতে বাধা দেয়। কারণ, সংখ্যায় বেশি হলেও অসংগঠিত শ্রমিক সবসময় দুর্বল ও অসহায়। পুঁজিবাদ টিকে আছে শ্রমিক শোষণ করে মে দিবসের চেতনা বাস্তবায়ন করতে হলে এই ব্যবস্থা পাল্টাতে হবে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করলে শ্রমিকের শ্রম ঘণ্টা কমার কথা কিন্তু মালিকরা মজুরি এতটা কমিয়ে দিয়েছে যে, ওভার টাইম না করলে সংসার চালানো কঠিন।
নেতৃবৃন্দ, বাজার দর ও মাথাপিছু আয় বিবেচনা করে জাতীয় ন্যূনতম মজুরি কমপক্ষে ২০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা এবং শ্রম আইনের অগণতান্ত্রিক ধারা বাতিল ও অবাধ ট্রেড ইউনিয়ন অধিকার নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে বলেন মহান মে দিবসে শ্রম অধিকার সংকোচনের সকল জাল ছিন্ন করে উৎপাদনের অনুপাতে মালিকানা এবং জীবিকার জন্য জীবন নয় বরং জীবনের জন্য জীবিকা এই নীতির ভিত্তিতে শ্রম অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম গড়ে তোলার প্রত্যয় নতুন করে ধারণ করতে হবে।
নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, আদমজী ইপিজেডে অবস্থিত বেকা গার্মেন্টস এন্ড টেক্সটাইল লিঃ এর শ্রমিকদের ৩ মাসের বকেয়া বেতন ঈদ বোনাস ক্ষতিপূরণ না দিয়ে কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। ঈদের এ সময়টায় সবাই যখন ঈদ আনন্দ করছে বেকা গার্মেন্টস শ্রমিকরা তখন বেতন বোনাস না পেয়ে অনাহারে অর্ধাহারে মানবেতর জীবন যাপন করছে। বেপজা, জেলা প্রশাসন, শিল্প পুলিশ, বিকেএমইএ, সাংসদরা কেউই তাদের সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসেনি। আগামীকালের মধ্যে যদি শ্রমিকরা বেতন বোনাস না পায় তাহলে বেকা গার্মেন্টস শ্রমিকরা ঈদের দিনে অনশন ধর্মঘট করবে বলে ঘোষণা করেছে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে তাদের বকেয়া বেতন বোনাস পরিশোধের জন্য প্রশাসনকে যথাযথ উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান জানান।

1