চ্যাম্পিয়নদের মতোই শুরু ফ্রান্সের

0

ডেইলি নারায়ণগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর ডটকমঃ অস্ট্রেলিয়াকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করে বিশ্বকাপে শুভ সুচনা করলো চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। জোড়া গোল করেছেন অলিভিয়ার জিরু। একটি করে গোল করেছেন আদ্রেঁয়া র্যাবিয়ট ও এমবাপ্পে।

চোটের পড়ে করিম বেনজেমা নেই। নেই এনগালো কান্তে, পল পগবা, ক্রিস্টোফার এনকুকু এবং প্রেসনেল কিমপেম্বের মতোতারকারাও। তবে সে দুঃখ পেছনে ফেলে এগিয়ে যেতে চেয়েছিল ফ্রান্স। চার ডিফেন্ডার নিয়ে ৪-২-৩-১ ফরমেশনে দল সাজান দিদিয়ের দেশম। ম্যাচের প্রথম মিনিটেই লক্ষ্যটা পরিস্কার করে দেয় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। শুরুতেই গতিময় আক্রমণেঅস্ট্রেলিয়ার রক্ষণ কাঁপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে তারা।

তবে ম্যাচের ৯ মিনিটে আরেকটি অঘটনের সম্ভাবনা জাগিয়ে গোল করে বসে অস্ট্রেলিয়া। লম্বা পাসেই মূলত হয়েছে সর্বনাশটা। প্রায় নিজেদের অর্ধ থেকে লম্বা পাসে বল বাড়ান হ্যারি সুটার।

দারুণ নিয়ন্ত্রণে বল নিয়ে ম্যাথু লেকি পাস দেন ক্রেইগ গুডউইনকে। সেই পাস ঠেকাতে গিয়ে থিও হার্নান্দেজকে রীতিমতো চোটে পড়ে মাঠ ছাড়তে হয়ে। আর বল পেয়ে প্রায় অরক্ষিত গুডউইন দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে লক্ষ্যভেদ করে এগিয়ে দেন অস্ট্রেলিয়াকে।
২৭ মিনিটে ব়্যাবিয়টের গোলে সমতা ফেরায় ফ্রান্স। অস্ট্রেলিয়া কর্নার ডিফেন্ড করার পর থিও হার্নান্দেজ বলটি বক্সে ফেরত পাঠান। অজি কিপার রায়ানকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ব়্যাবিয়ট হেড করে এগিয়ে দেন দলকে।

ব়্যাবিয়টের পর জিরুর দুরন্ত গোল। ব়্যাবিয়টের মাপা পাস ধরে জিরু অজি ডিফেন্স ভেদ করে জালে বল জড়ান। দেশের জার্সিতে গোলের হাফসেঞ্চুরি করে ফেলেন তিনি।

৪৩ মিনিটে দারুণ সুযোগ পায় ফ্রান্স। এমবাপ্পে ব্যাকহিল পাস দেন গ্রিজম্যানকে। কিন্তু সেই বল ধরে ঠিক করে লক্ষ্যে রাখতে পারেননি গ্রিজম্যান। তার নিচু শট বেরিয়ে যায় মাঠের বাইরে।

২-১ এগিয়ে বিরতিতে যায় ফ্রান্স। বিরতির তারা যেন আরও উজ্জীবিত, আরও ক্ষুরধার।

৬৮ মিনিটে আঘাত হানেন এমবাপ্পে। ওসমান দেম্বেলের পাস থেকে দারুণ এক গোল করেন তিনি। এর তিন মিনিট পরে ৪-১ গোলে এগিয়ে যায় ফরাসিরা। এমবাপ্পের অ্যাসিস্টে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন জিরু। দেশের জার্সিতে এটি জিরুর ৫১ নম্বরগোল। এর মাধ্যমে ফরাসি তারকা থিয়েরি অঁরির রেকর্ড ছুঁলেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের দুর্দান্ত জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ফ্রান্স।

0